শিরোনাম

শীর্ষ সংবাদ

মোংলা-পায়রা বন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপৎ সংকেত

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ আরও শক্তিশালী হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এটি বাংলাদেশের খুলনা ও বরিশাল উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূল থেকে ৩০০ কিলোমিটারেরও কম দূরত্বে অবস্থান করছে।

এজন্য মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপৎ সংকেত এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৯ নম্বর মহাবিপৎ সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

রবিবার (২৬ মে ২০২৪) সকালে এক বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে (ক্রমিক নম্বর-১০) এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এতে বলা হয়, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ উত্তর দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে একই এলাকায় প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে।

এটি রবিবার সকাল ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৪০০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ২৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল।

আরও পড়ুন>>স্বামীর প্রেমে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

এটি আরও উত্তর দিকে অগ্রসর হয়ে রবিবার সন্ধ্যা বা মধ্যরাত নাগাদ মোংলার কাছ দিয়ে সাগর আইল্যান্ড (পশ্চিমবঙ্গ) ও বাংলাদেশের পটুয়াখালীর খেপুপাড়া উপকূল অতিক্রম করতে পারে। বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের অগ্রভাগের প্রভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৬৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটার, যা দমকা বা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ১২০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর বিক্ষুব্ধ রয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর আরও জানিয়েছে, পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপৎ সংকেত নামিয়ে এর পরিবর্তে ১০ নম্বর মহাবিপৎ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বরগুনা, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চর ১০ নম্বর মহাবিপৎ সংকেতের আওতায় থাকবে।

আরও পড়ুুুুন>>গোয়ান্দা পরিচয়ে তরুণীকে ধর্ষণ; যুবক গ্রেপ্তার

কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৬ নম্বর বিপৎসংকেত নামিয়ে এর পরিবর্তে ৯ নম্বর মহাবিপৎ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবি খো. হাফিজুর রহমান জানান, খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বরগুনা, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী, ফেনী, কুমিল্লা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলার নদীবন্দরগুলোকে ৪ নম্বর নৌ-মহাবিপৎ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

প্রবল ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রবর্তী অংশ ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বরগুনা, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী, ফেনী, কুমিল্লা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৮ থেকে ১২ ফুটের বেশি উচ্চতার বায়ুতাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন>>আনোয়ারুল আজীম আনার পরিকল্পিতভাবে খুন

হাফিজুর রহমান আরও বলেন, প্রবল ঘূর্ণিঝড়টির প্রভাবে রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ ভারী (৪৪-৮৮ মিমি/২৪ ঘণ্টা) থেকে অতিভারী (৮৯ মিমির বেশি/২৪ ঘণ্টা) বর্ষণ হতে পারে। অতিভারী বর্ষণের প্রভাবে কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও চট্টগ্রামের পাহাড়ি অঞ্চলের কোথাও কোথাও ভূমিধস হতে পারে।

google-news-channel-newsasia24

স্বামীর প্রেমে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেওয়ায় স্ত্রী সালমা আক্তারকে (৪০) হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় স্বামী রুপচানকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পরিপ্রেক্ষিতে নিহতের বড় ভাই রিপন খান নিজে বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আজ শুক্রবার (২৪ মে ২০২৪ ) ভোরে সোনারগাঁ পৌরসভার ভট্টপুর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত সালমা পৌরসভার ভট্টপুর এলাকার মো. রুপচাঁনের স্ত্রী। সে দুই সন্তানের জননী।

স্থানীয় বাসিন্দা ও নিহতের পরিবার জানায়, অভিযুক্ত স্বামী রুপচাঁন দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় একটি কোম্পানিতে চাকরি করার সূত্রে তার সহকর্মী এক নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পরে। পরকীয়ার বিষয়টি জানতে পেরে সালমা এর প্রতিবাদ করে। এতে তাদের মধ্যে কলহের সৃষ্টি হয়।

নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ভট্টপুর গ্রামের রুপচানের সঙ্গে পৌর এলাকার তাজপুর গ্রামের সালাউদ্দিনের মেয়ে সালমা আক্তারের ১৯ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে একটি আট বছর বয়সী মেয়ে ও ১৮ বছর বয়সী ছেলে রয়েছে।

নিহতের ছেলে আব্দুল্লাহ আরবান জানান, আমার বাবা দীর্ঘ দিন ধরে পরকীয়ার করত। এই নিয়ে মায়ের সাথে বাবার প্রায়ই ঝগড়া হতো। কিছুদিন আগেও মাকে অনেক মেরেছে বাবা। পরে আমি আমার নানির বাড়ির আত্মীয়দের জানিয়েছি। উনারা বলেছিল ঈদের পর বসবে কিন্তু আজ আমার মাকে মেরেই ফেলল বাবা।

নিহত সালমার বড় ভাই রিপন জানান, দুই বছর ধরে তার বোনের স্বামী পরকীয়ায় জড়িত। এ নিয়ে একাধিকবার বিচার সালিশও হয়েছে। কিছুদিন আগেও তার বোনকে অনেক মারধর করে এবং মেরে ফেলার হুমকি দেন।

আরও পড়ুন:

এই নিয়ে তাদের সাথে তার কথাকাটাকাটিও হয়। এক পর্যায়ে তার বোনকে নিয়ে আসতে চাইলে তার বোন দুই বাচ্চার মুখের দিকে চেয়ে তার স্বামীর বাড়িতেই থেকে যায়। কিন্তু আজ ভোরে বোনের মরদেহ বাড়ি থেকে দূরে এক পুকুরে পাওয়া গেছে।

তিনি আরও জানান, তার বোন কখনো পুকুরে যায় না। সে সব সময় বাড়ির টিউবওয়েলেই গোসল করে। পুকুর তার বাসা থেকে অনেক দূরে। তার স্বামীই তাকে শ্বাসরোধ করে মেরে পুকুরে ফেলে রেখেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মহসিন মিয়া জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে স্বামীকে আটক করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন করা যাবে।

google-news-channel-newsasia24

গোয়ান্দা পরিচয়ে তরুণীকে ধর্ষণ; যুবক গ্রেপ্তার

বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশালে গোয়েন্দা পরিচয়ে ঘরে প্রবেশ করে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৮ এর একটি দল।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ মে) রাতে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে র‌্যাবের এএসপি হাসান জানিয়েছেন।

গ্রেপ্তার হওয়া ধর্ষক রেফাউল ইসলাম লিটন (২৩) নগরীর পূর্ব বগুড়া রোডের বাসিন্দা আব্দুল ছাত্তার মিয়ার ছেলে।

শুক্রবার (২৪ মে ) র‌্যাবের এএসপি হাসান জানান, গত ১২ মে নগরীর আমির কুটির এলাকার বাসায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী তরুণীকে বাসায় একা রেখে মা কাজে যান।

বেলা পৌনে একটার দিকে লিটন ওই বাসায় আসে। লিটন নিজেকে গোয়েন্দা সংস্থার লোক পরিচয় দিয়ে বাসায় প্রবেশ করে। পরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ করে।

তরুণীর মা ঘরে এসে লিটনকে দেখতে পেয়ে পরিচয় জানতে চায়। তখন লিটন পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় তরুণীর মা বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন।

আরও পড়ুন :

এএসপি জানান, চাঞ্চল্যকর ও আলোচিত এ ঘটনায় করা মামলার ছায়া তদন্ত শুরু করে র‌্যাব। তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে লিটনের অবস্থান বাকেরগঞ্জ এলাকায় শনাক্ত করে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে লিটনকে গ্রেপ্তার করে।

ধর্ষককে কোতোয়ালি মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে এএসপি জানান।

google-news-channel-newsasia24

উখিয়া ক্যাম্পের আগুনে পুড়লো ৫ শতাধিক স্থাপনা

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের উখিয়া ক্যাম্পের আগুনে পুড়লো ৫ শতাধিক স্থাপনা। দেড়ঘণ্টার আগুনে পুড়েছে দোকান, ঘর, মসজিদ, এনজিও অফিসসহ পাঁচ শতাধিক স্থাপনা। এরমধ্যে দুই শতাধিক স্থাপনা পুড়ে ছাই হয়েছে।

এতথ্য নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক অতীশ চাকমা ।

আজ শুক্রবার (২৪ মে) বেলা ১১টার দিকে উখিয়ার থাইংখালি ১৩ নম্বর তানজিমারখোলা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন লাগে। দেড়ঘণ্টা পর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। অগ্নিকাণ্ডের কারণে আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছেন আড়াই হাজারের মতো রোহিঙ্গা।

ক্যাম্প সূত্রে জানা গেছে, থাইংখালি ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এনজিও কারিতাস অফিসের কাছ থেকে হঠাৎ আগুনের সূত্রপাত হয়। তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে আগুন দ্রুত ক্যাম্পের কাঁঠাল গাছতলা বাজারসহ ক্যাম্পের ঘরে ঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

এতে সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে দুইশ বাঁশের ঘর। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২২০টি ঘর। এছাড়া ২৫টি দোকান, ৪৫টি টয়লেট, কারিতাস অফিস ও মসজিদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

More-than-500-structures-were-burnt-in-the-fire-of-Ukhia-camp-newsasia24
উখিয়া ক্যাম্পের আগুনে পুড়লো ৫ শতাধিক স্থাপনা

কক্সবাজারের ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক অতীশ চাকমা জানান, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন লাগার খবর পেয়ে প্রথমে দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। সঙ্গে যোগ দেন এপিবিএন সদস্য ও স্থানীয় রোহিঙ্গারা। পরে আরও দুটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে যায়।

আরও পড়ুন:

তিনি বলেন, সব ইউনিট ও ক্যাম্প সংশ্লিষ্টদের সমন্বিত দেড়ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে। তবে, কোন স্থান থেকে আগুনের সূত্রপাত তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে।

অগ্নিকাণ্ডে সম্পূর্ণ ও আংশিক মিলিয়ে পাঁচ শতাধিক স্থাপনা পুড়ে গেছে। সবমিলিয়ে কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে।

কক্সবাজারে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ সামছু-দৌজা নয়ন জানান, কীভাবে আগুন লেগেছে তা জানার চেষ্টা চলছে। যেসব রোহিঙ্গাদের ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে. শিগগির তাদের ঘরের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।

google-news-channel-newsasia24

ক্রেতার অভাবে গুদামে পড়ে আছে ৩০ টন পেঁয়াজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাত দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজ বিক্রি করা যায়নি। এতে করে বিপাকে পড়েছেন আমদানিকারকরা।

বুধবার (২২ মে) সকালে আরএসবি আমদানিকারকের গুদামে গিয়ে দেখা যায়, গত ১৫ মে ভারত থেকে একটি ট্রাকে ৩০ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি করেন এই প্রতিষ্ঠান।

আমদানিকৃত পেঁয়াজ রাখা হয়েছে তার গুদামে। ভারত থেকে আমদানিকৃত এসব পেঁয়াজ প্রতি কেজির দাম ৬০ থেকে ৬৫ টাকা। তবে পাইকাররা দাম বলছেন ৫০ থেকে ৫৫ টাকা। এতে বড় ধরনের লোকসান গুনতে হবে ব্যবসায়ীকে। যার কারণে দাম পাবার আশায় গুদামে রাখা হয়েছে।

এদিকে হিলি বন্দর বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দেশি পেঁয়াজ খুচরা বিক্রি হচ্ছে ৬৫ টাকা কেজি দরে। দেশি ও ভারতীয় পেঁয়াজের দাম সমান থাকায় ভারতীয় পেঁয়াজের চাহিদাও কম।

আরও পড়ুন:

আরএসবি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি আহম্মেদ আলী জানান, ভারত পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর ৪০ শতাংশ শুল্কে গত ১৫ মে ভারত থেকে একটি ট্রাকে ৩০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়।

আমদানিকৃত এসব পেঁয়াজে দুই দেশ মিলে প্রায় ৫ লাখ টাকা শুল্ক পরিশোধ করতে হয়েছে। যে দামে আমদানি করেছি সে দামে বিক্রি না হওয়ায় গুদামে রাখা হয়েছে।

google-news-channel-newsasia24

আনোয়ারুল আজীম আনার পরিকল্পিতভাবে খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার গত ১২ মে ভারতে যান চিকিৎসার উদ্দেশ্যে। ওঠেন পশ্চিমবঙ্গে বরাহনগর থানার মণ্ডলপড়া লেনে গোপাল বিশ্বাস নামে এক বন্ধুর বাড়িতে।

পরের দিন ডাক্তার দেখানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন। কিন্তু এরপর থেকেই রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন আনোয়ারুল আজীম।

বাড়ি থেকে বেরোনোর পাঁচদিন পরে, গত ১৮ মে বরাহনগর থানায় আনোয়ারুল আজীম নিখোঁজের বিষয়ে একটি জিডি করেন বন্ধু গোপাল বিশ্বাস। এরপরও খোঁজ মেলেনি তিনবারের এই সংসদ সদস্যের।

বুধবার (২২ মে) হঠাৎ খবর ছড়ায়, কলকাতার পার্শ্ববর্তী নিউটাউন এলাকায় বহুতল সঞ্জীবা গার্ডেনস নামে একটি আবাসিক ভবনের বিইউ ৫৬ নম্বর রুমে আনোয়ারুল আজীমকে হত্যা করা হয়েছে। ঘরের ভেতর পাওয়া গেছে রক্তের ছাপ।

কিছু মিডিয়ায় বাংলাদেশি এমপির খণ্ড-বিখণ্ড দেহ উদ্ধারের কথা বলা হলেও এ বিষয়ে এখনো কোনো নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে যেন মুখে কুলুপ এঁটেছে কলকাতা পুলিশ। কঠোর নিরাপত্তা মধ্যে পুরো ভবনটি ঘিরে রেখেছেন পুলিশ সদস্যরা।

আরও পড়ুন:রাইসির মৃত্যুর শেষ রহস্য

জানা গেছে, আনোয়ারুল আজীম আনার যে কক্ষে ছিলেন, এই মুহূর্তে সেখানে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

ভবনের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ জানতে পেরেছে, গত ১৩ মে সঞ্জীবা গার্ডেনসে উঠেছিলেন এমপি আনার। তার সঙ্গে ছিলেন আরও তিনজন, যার মধ্যে ছিলেন একজন নারী। এরপর থেকে আনোয়ারুল আজীম আনার ভবনের বাইরে না বেরোলেও বাকিরা বেশ কয়েকবার বের হন।

সঞ্জীবা গার্ডেনসের আশপাশে পুরোটাই বস্তি অঞ্চল। তার মাঝেই অবস্থিত অভিজাত আবাসিক ভবনটি। আর সেখানেই শেষবারের মতো জীবিত অবস্থায় দেখা গিয়েছিল আনোয়ারুল আজীম আনারকে।

আরও পড়ুন:ভোট কম পড়ার কারন জানালেন সিইসি

এদিকে, বাংলাদেশি এমপি খুনের বিষয়ে কলকাতা পুলিশ এখনো কিছু জানায়নি। তবে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ভারতে নিখোঁজ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। এ ঘটনায় বাংলাদেশের মানুষই জড়িত। এরই মধ্যে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

google-news-channel-newsasia24

রাইসির মৃত্যুর শেষ রহস্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গত রবিবার পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশে হেলিকপ্টার বিধ্বস্তে নিহত হয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমিরাব্দুল্লাহিয়ানসহ তাদের সফরসঙ্গীরা।

এবার রাইসির বিমান বিধ্বস্ত নিয়ে চালঞ্চল্যকর তথ্য জানাল রাইসির সাথে সফরে থাকা একজন ইরানি কর্মকর্তা। এ বিষয়ে সোমবার বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে ইরানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম আইআরএনএ।

আজারবাইজান প্রজাতন্ত্রের সাথে ইরানের সীমান্তে বাঁধ উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে ইরানের প্রেসিডেন্ট রাইসির সফর সঙ্গী ছিলেন গোলামহোসেন ইসমাইলী নামের এক কর্মকর্তা। ফেরত আসার সময় ইসমাইলি তিনটি হেলিকপ্টারের অন্য একটিতে থাকায় বেঁচে যান তিনি।

এই কর্মকর্তা জানান, ইরানের ভারজাকান অঞ্চলের যেখানে দুর্ঘটনা ঘটে সেখানকার আবহাওয়া পরিস্থিতি শুরুতে ভালো ছিল। গত ১৯ মে স্থানীয় সময় দুপুর ১টার দিকে রাইসির হেলিকপ্টার বহর উড্ডয়ন শুরু করে।

আরও পড়ুুন>>ভোট কম পড়ার কারন জানালেন সিইসি

এর ৪৫ মিনিট পর রাইসির হেলিকপ্টারের পাইলট অন্যান্য হেলিকপ্টারকে উচ্চতা বাড়িয়ে মেঘ এড়িয়ে যেতে বলে। এর কিছুক্ষণ পরই সেটি উধাও হয়ে যায়।

তিনি বলেন, “নির্দেশমত উচ্চতা বাড়িয়ে মেঘের উপর দিয়ে উড়ে যাওয়ার ৩০ সেকেন্ড পরই আমাদের পাইলট লক্ষ্য করলেন যে রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি অদৃশ্য হয়ে গেছে।”

ইসমাইলি বলেন, এমন অবস্থায় আমাদের পাইলট প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টারের সন্ধানে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

তিনি জানান, এরপর কয়েকবার রেডিও ডিভাইসের মাধ্যমে রাইসির হেলিকপ্টারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। এদিকে, মেঘের কারণে উচ্চতা কমাতে না পারায় বাকি হেলিকপ্টারগুলো একটি কাছের তামা খনিতে অবতরণ করে।

আরও পড়ুন>>এভারেস্ট জয় করেই মারা গেলেন তারা

ইসমাইলি জানান, সে সময় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমিরাবদুল্লাহিয়ান এবং প্রেসিডেন্টের সুরক্ষা ইউনিটের প্রধানকে বারবার ফোন দেয়া হলেও সাড়া পাওয়া যায়নি।

রাইসির বহরে থাকা এই কর্মকর্তা বলেন, অন্য দুটি হেলিকপ্টারের পাইলটেরা প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টারের দায়িত্বে থাকা ক্যাপ্টেন মোস্তাফাভির সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন।

কিন্তু সে সময় ফোন ধরেন তাবরিজের জুমার নামাজের ইমাম মোহাম্মদ আলী আল-হাশেম। তিনি জানান, তাদের হেলিকপ্টারটি একটি উপত্যকায় বিধ্বস্ত হয়েছে। তার অবস্থা তখন গুরুত্বর ছিল, কিন্তু দুর্ঘটনার পরও কয়েক ঘণ্টা বেঁচে ছিলেন মোহাম্মদ আলী আল-হাশেম।

ইসমাইলি নিজেই আল হাশেমের সাথে দ্বিতীয় বার যোগাযোগ করেছিলেন এবং পরিস্থিতি সম্পর্কে একই উত্তর পেয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন

তিনি বলেন, “যখন আমরা দুর্ঘটনার অবস্থান খুঁজে পাই, তখন মরদেহের অবস্থা দেখে বুঝি যে, প্রেসিডেন্ট রাইসি এবং অন্যান্য সঙ্গীরা তাৎক্ষণিকভাবে মারা গিয়েছিলেন। শুধুমাত্র আল হাশেম কয়েক ঘন্টা পরে শহীদ হয়েছেন।

গত রবিবার একটি বাঁধ উদ্বোধন করতে আজারবাইজান সীমান্তবর্তী এলাকায় গিয়েছিলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ানসহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা।

উদ্বোধন শেষে আজারবাইজান প্রদেশের রাজধানী তাবরিজে ফেরার পথে ইরানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশে দুর্ঘটনার কবলে পরে প্রেসিডেন্ট এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি। ঘটনাস্থলেই নিহত হন তারা।

তবে অন্য দুটি হেলিকপ্টার অন্যান্য কর্মকর্তাদের নিয়ে নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছে।

ঘন কুয়াশার কারণে দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টার টানা অভিযান শেষে গত সোমবার হেলিকপ্টারটির খোঁজ পায় উদ্ধারকারী দল। হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ইরানের প্রেসিডেন্টসহ নয়জন নিহত হন।

google-news-channel-newsasia24

ভোট কম পড়ার কারন জানালেন সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক: একটি বড় দল ভোট বর্জন করে ভোটদানে নিরুৎসাহিত করায় উপজেলা নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে আসছেন না। এটা রাজনৈতিক সংকট। আশা করি, আগামীতে এই সংকট কেটে যাবে।

মঙ্গলবার (২১ মে) দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

সিইসি বলেন, দ্বিতীয় ধাপে ১৫৬টি উপজেলা পরিষদে নির্বাচন হয়েছে। তার মধ্যে ইভিএমের মাধ্যমে ২৪টিতে এবং ব্যালট পেপারে ১৩২টি ভোট হয়েছে। দু’একটা যায়গায় হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

সেখানে আহত হয়ে এক বা দুইজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তবে নির্বাচন ভালোই শান্তিপূর্ণ হয়েছে। এতে উপস্থিতির হার ৩০ শতাংশের ওপরে হতে পারে। তবে একেবারে নির্ভুল তথ্য বুধবার পাওয়া যাবে।

তিনি বলেন, আমরা যেটা সব সময় বলি, টিভিতে তাকিয়ে থাকি। কোথাও কোথাও মিডিয়ার কিছু কর্মীও আহত হয়েছেন। সাহস করে যারা ছবি তুলতে গেছেন, তারা হয়তো হেনস্তার শিকার হয়েছেন। আমরা সঠিক তথ্য এখনও পাইনি। হাতাহাতিতে ৩০ জন আহত হয়েছেন, এক বা দুইজন গুরুতর আহত হয়েছেন। গতকাল রাতে একজনের হাত কেটে গেছে।

তিনি আরও বলেন, যেখানেই অন্যায়, অনাচার হয়েছে, ভোট কারচুপির চেষ্টা হয়েছে, সেখানেই হস্তক্ষেপ করা হয়েছে। মোট ২৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিছু কারচুপির জন্য ১০ জনকে তাৎক্ষণিক কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

দুইজন নিহত হয়েছেন। এটা ভোটকে কেন্দ্র করে নয়। গরম বা অন্য কোনো কারণে। আমরা তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

প্রথম ধাপে বলেছিলেন ধান কাটা ও বৈরি আবহাওয়ার কারণ ভোট ৩৬ শতাংশ পড়েছে। এই ধাপে আরও কম পড়ার কারণ কী- এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ব্যক্তিগতভাবে ৩০ শতাংশ ভোটকে কখনওই উৎসাহব্যঞ্জক মনে করি না।

একটা বড় প্রধানতম কারণ হতে পারে দেশের একটা বড় রাজনৈতিক দল (বিএনপি) তারা প্রকাশ্যে এবং ঘোষণা দিয়ে ভোট বর্জন করেছে।

পাশাপাশি জনগণকে ভোটদানে নিরুৎসাহিত করেছে। যেকোনো গণতান্ত্রিক দেশে এই ধরনের চেষ্টা হতে পারে। তবে ভোট নিয়ে কোনো সংকট নেই। সংকট হচ্ছে রাজনীতিতে।

আরও পড়ুন:

সরকারের সাবেক এই সচিব বলেন, আমি মনে করি, রাজনীতি যদি আরও সুস্থ ধারায় প্রবাহিত হয়, আগামীতে ভোটের যে স্বল্পতা, যে সমস্যাটুকু হয়তো কাটিয়ে উঠব। যেকোনো গণতান্ত্রিক দেশে ভোটারদের স্বশাসনটা বুঝতে হবে।

স্বশাসনটা হচ্ছে নিজেই নিজেকে শাসন করবে, নিজেদের প্রতিনিধিদের মাধ্যমে। এটা হচ্ছে সচেতনতা, এটাই হচ্ছে গণতন্ত্রের একটা গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা। সে দিক থেকে আমরা আশা করি, রাজনীতিতে যে সংকট রয়েছে সেটা কাটিয়ে উঠব এবং সুস্থ ধারায় রাজনীতি প্রবাহিত হবে। ভোটাররা উৎসাহী হবেন। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে আসবেন।

সাংবাদিকদের ভোটকেন্দ্রে যেতে বাধা দেওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই তথ্য আমাদের কাছে নেই। বাংলাদেশ বিস্তৃত জমিন। কোথাও কোথাও এই ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। আমরা স্বচ্ছতা ও দৃশ্যমানতায় বিশ্বাস করি।

আপনারা যে কোনো তথ্য জনগণের কাছে উপস্থাপনের মতো হলে আপনারা সংগ্রহ করবেন। আপনাদের প্রতি আমাদের সমর্থন থাকবে। তথ্যগুলো যদি সঠিক হয়ে আমরা সেটা দেখব। বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটতে পারে। এজন্য আমরা দুঃখিত। মিডিয়া যেন স্বাধীনভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে, এজন্য আমরা আইনও করেছি।

google-news-channel-newsasia24

এভারেস্ট জয় করেই মারা গেলেন তারা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: এভারেস্ট জয় করে দুই পর্বতারোহীর মৃত্যু হয়েছে। ফেরার পথে তারা মারা যান। দুইজনের মঙ্গোলিয়ার নাগরিক। আট হাজার মিটারের বেশি উচ্চতায় তাদের মরদেহ পাওয়া গেছে।

এইটকে নামের একটি পর্বতারোহী সংস্থার পরিচালক পেম্বা শেরপা জানিয়েছেন, উসুখজারগেল তেসেদেনদামবা ও পুরুভসুরেন লাখাগাবাজাভ গত ১৩ মে দুপুর ১২টার দিকে এভারেস্টের চূড়ায় ছবি তোলেন। তাদের কাছে থাকা মোবাইল ফোনে এমন তথ্য পাওয়া যায়।

গত ১৭ মে উসুখজারগেলের মরদেহটি পাওয়া যায় দক্ষিণ সামিটে। পুরুভসুরেনের মরদেহটি পাওয়া যায় ব্যালকনি এরিয়ায়।

শেরপা জানান, এভারেস্টের চূড়া থেকে নামতে তাদের অনেক কষ্ট হচ্ছিল। কারণ তাদের কাছে পর্যাপ্ত অক্সিজেন ছিল না।

কোনো ধরনের ব্যক্তিগত গাইড ছাড়াই তারা দুইজনে এভারেস্টের চূড়ায় যাত্রা শুরু করেন। এরপর গত ১২ মে থেকে তার নিখোঁজ ছিলেন।

তাদের মধ্যে একজনের মরদেহ পাওয়া যায় আট হাজার ৬০০ মিটার উচ্চতায় ও আরেক জনের মরদেহ পাওয়া যায় আট হাজার ৪০০ মিটার উচ্চতায়।

google-news-channel-newsasia24

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ধোলাইখালে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন লেগেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৪ ইউনিট।

আজ শনিবার (১৮ মে) সকাল ১০টা ৪০ মিনিটের দিকে আগুন লাগে বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের অফিসার লিমা খানম।

তিনি জানান, ধোলাইখালে চারতলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে আগুন লেগেছে। খবর পেয়ে সূত্রাপুর ও সিদ্দিকবাজার থেকে চারটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায় নি বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:

google-news-channel-newsasia24