শিরোনাম

আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানের নির্বাচনে বোমা হামলা, নিহত ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে। এর মধ্যেই বোমা ও বন্দুক হামলায় কমপক্ষে পাঁচজন নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) দেশটির খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশে এসব ঘটনা ঘটেছে।

খাইবার পাখতুনখাওয়ার ডেরা ইসমাইল খান জেলার পুলিশপ্রধান রউফ কাইসরানি জানিয়েছেন, কুলাচি এলাকায় পুলিশের একটি টহল দলকে লক্ষ্য করে গুলি ও বোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে চার পুলিশ সদস্য নিহত হন। পরে ট্যাংক নামক শহরে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি গাড়ি লক্ষ্য করে ছোড়া গুলিতে একজন নিহত হন।

পাকিস্তানের মাকরান ডিভিশনের পুলিশ কমিশনার সাইদ আহমেদ উমরানি জানান, বেলুচিস্তান প্রদেশের বিভিন্ন জায়গায়ও গ্রেনেড হামলার ঘটনা ঘটেছে। তবে এসব ঘটনায় কেউ হতাহত হননি।

এর আগে বুধবার (৭ ফ্রেবুয়ারি) বেলুচিস্তান প্রদেশে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ২৬ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় পাকিস্তানজুড়ে নিরাপত্তাজনিত উদ্বেগ সৃষ্টি হয়। চার প্রদেশের মুখ্য সচিব ও পুলিশের মহাপরিদর্শকদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার সিকান্দার সুলতান রাজা।

আরও পড়ুন: ৭০০ কোটি টাকার পশ্চিম এশিয়ার সবচেয়ে বড় মন্দির! জেনে নিন, এই মন্দিরের গুপ্ত রহস্য!!

ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে নিরাপত্তা বাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশ দেয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাগুলো।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ভোটগ্রহন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশজুড়ে বিভিন্ন সড়কে ও ভোটকেন্দ্রে হাজার হাজার সৈন্য মোতায়েন করা হয়। একই সঙ্গে ইরান ও আফগানিস্তানের সঙ্গে পাকিস্তানের সীমান্ত সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: একসঙ্গে আত্মহত্যা করতে গিয়ে প্রতারনা করলেন প্রেমিকা, প্রেমিকের মৃত্যু

তাছাড়া আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পাকিস্তানজুড়ে সাময়িক স্থগিত রাখা হয়েছে ইন্টারনেট সংযোগ ও টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থাও। এরপরও খাইবার পাখতুনখোয়ায় বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটলো।

স্থানীয় প্রার্থীরা জানায়, উত্তর ওয়াজিরিস্তানের নির্বাচনী প্রার্থী মহসিন দাওয়ার পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের (ইসিপি) কাছে লেখা চিঠিতে জানিয়েছেন, তার নির্বাচনী এলাকার কিছু ভোটকেন্দ্র স্থানীয় তালেবান জঙ্গিরা দখলে নিয়েছে; যারা ভোটার ও স্থানীয়দের ভোটের আগে থেকেই হুমকি দিয়ে আসছিল।

আরও পড়ুন: মালয়েশিয়ার ‘মিনি ঢাকায়’ অভিযান, আটক ৪৯০

তবে এই অভিযোগের বিষয়ে দেশটির নির্বাচন কমিশন তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি।

আজ বৃহস্পতিবার (৮ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়, যা চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

google-news-channel-newsasia24

Follow

৭০০ কোটি টাকার পশ্চিম এশিয়ার সবচেয়ে বড় মন্দির! জেনে নিন, এই মন্দিরের গুপ্ত রহস্য!!

৭০০ কোটি টাকার পশ্চিম এশিয়ার সবচেয়ে বড় মন্দির! কি রয়েছে এই মন্দিরের অভ্যন্তরে?

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ৭০০ কোটি টাকা দিয়ে তৈরি পশ্চিম এশিয়ার সবচেয়ে বড় মন্দিরে রয়েছে ১৮ লাখ ইট এবং সাতটি চূড়া।

এই বছরের আগামী ১৪ তারিখে এই মন্দিরটি উদ্বোধন করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে এটি ভারতে নয়, রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহির আবু ধাবির কাছে অবস্থিত আবু মুরেইখা এলাকায়।

The largest temple in West Asia worth 700 million rupees! Find out, the secret of this temple-newsasia24!! 2

চলুন, এক নজরে দেখে নিই সবচেয়ে বড় মন্দিরের বৈশিষ্ঠগুলো:

১) এই মন্দির নির্মাণে খরচ হয়েছে ভারতীয় মুদ্রায় ৭০০ কোটি টাকা এবং ৫.৪ হেক্টর জমির উপর তৈরি হয়েছে এই হিন্দু মন্দিরটি।

২) এই মন্দিরটি নির্মানে লেগেছে ১৮ লক্ষ ইট। অন্যদিকে, গোলাপি রঙের বেলেপাথর এবং মার্বেল এর শোভা বাড়ানো হয়েছে, যা দুর্দান্ত।

৩) ৪০ হাজার ঘনমিটারের মার্বেল এবং ১ লক্ষ ৮০ হাজার ঘনমিটারের বেলেপাথর দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে হিন্দু মন্দির।

৪) মোট সাতটি শৃঙ্গ রয়েছে মন্দিরের চারপাশে । প্রতিটি শৃঙ্গ সংযুক্ত আরব আমিরশাহির এক একটি আমিরকে চিহ্নিত করে।

৫) গত তিন বছর ধরে রাজস্থান এবং গুজরাত থেকে দু’হাজারেরও বেশি শিল্পী গিয়েছিলেন সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। সেখানে গিয়ে মন্দিরের জন্য স্তম্ভ নির্মাণ করেছিলেন তাঁরা।

৬) মন্দিরে থাকা ৪০২টি স্তম্ভ নির্মাণের দায়িত্বে ছিলেন দু’হাজারের বেশি কারিগর। সাদা মার্বেল দিয়ে তৈরি করা হয় এই স্তম্ভগুলি। সাদা মার্বেলগুলি গ্রিসের ম্যাসিডোনিয়া থেকে আনা হয়েছিল।

৭) মন্দিরের অভ্যন্তর দেখেও যেন তাক লেগে যাওয়ার জোগাড়। অ্যাম্ফিথিয়েটার থেকে শুরু করে রয়েছে গ্যালারি। বইপ্রেমীদের জন্য গ্রন্থাগারের ব্যবস্থা করা হয়েছে মন্দির চত্বরে।

আরও পড়তে পারেন: 

৮) মজলিসের পাশাপাশি মন্দিরের ভিতরে রয়েছে দু’টি কমিউনিটি হল। দু’টি হল মিলিয়ে পাঁচ হাজার লোক একসঙ্গে বসতে পারেন।

৯) যাঁরা খাওয়াদাওয়া করতে ভালবাসেন, তাঁদের জন্য হিন্দু মন্দির চত্বরে রয়েছে একটি ফুড কোর্টও। রয়েছে বাগান এবং শিশুদের জন্য আলাদা খেলার জায়গা।

১০) প্রাচীন ভারতীয় শৈলীর অনুসরণেভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে মন্দির। মার্বেল এবং বেলেপাথরের উপর ভাস্কর্য তৈরি করে সেগুলি ভারত থেকে আবু ধাবি পাঠিয়েছেন ভারতের কারিগরেরা।

The largest temple in West Asia worth 700 million rupees! Find out, the secret of this temple-newsasia24!!3

১১) ৪০২টি স্তম্ভের পাশাপাশি হিন্দু মন্দিরে রয়েছে দু’টি ডোম এবং ১২টি সমরন। মন্দিরে পুজো করা হবে রাম, সীতা, কৃষ্ণ, আয়াপ্পান এবং স্বামীনারায়ণের।

১২) আবু ধাবির হিন্দু মন্দিরটি এমন ভাবে নির্মাণ করা হয়েছে যে, ভূমিকম্প হলে রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা সাতের ঘরে পৌঁছে গেলেও মন্দিরের কোনও ক্ষয়ক্ষতি হবে না।

জনসাধারণের জন্য মন্দিরটি ১৮ ফেব্রুয়ারি খোলা হবে।

google-news-channel-newsasia24

একসঙ্গে আত্মহত্যা করতে গিয়ে প্রতারনা করলেন প্রেমিকা, প্রেমিকের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: একসঙ্গে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন প্রেমিক-প্রেমিকা। তাই ট্রেনের নিচে ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য রেললাইনে দাঁড়ান তারা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সরে গেলেন প্রেমিকা। তার চোখের সামনেই চলন্ত ট্রেনের সামনে লাফিয়ে মারা গেলেন প্রেমিক।

গত (০১-০২-২০২৪) বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের রাজস্থানে। এতে মৃত্যু হয়েছে ৩৪ বছর বয়সী প্রেমিক রাজু ভাটের।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, পেশায় দিনমজুর রাজুর দুই সন্তান রয়েছে, রয়েছেন স্ত্রীও। তারপরেও রাজুর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল ২০ বছরের এক তরুণীর।

রাজুর পরিচিতরা জানিয়েছেন, দুজনেই বুঝেছিলেন বিয়ে করা সম্ভব নয়। এনিয়ে বৃহস্পতিবার দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। তার পরই একসঙ্গে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তারা। পুলিশকে ওই তরুণী জানিয়েছেন, দ্রুতগতি ট্রেনকে সামনে আসতে দেখে ভয় পেয়ে পিছিয়ে যান তিনি। কিন্তু রাজু ঝাঁপ দেন।

আরও পড়ুন:

তবে রাজুর পরিবার এখন দাবি করছে, রাজুকে হত্যা করে তাঁর দেহ ট্রেনের সামনে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে ওই তরুণীর পরিবার। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রাজুর মরদেহ তারা নিতে রাজি হননি।

পুলিশ পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে।

google-news-channel-newsasia24

Follow

মালয়েশিয়ার ‘মিনি ঢাকায়’ অভিযান, আটক ৪৯০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মালয়েশিয়ার ক্লাং শহরে এক অভিযানে ৪৯০ জন বিদেশিকে আটক করেছে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ। শহরের ‘মিনি ঢাকা’খ্যাত জালান আমান পেরদানার একটি অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

আটকদের মধ্যে বাংলাদেশ, নেপাল, আফগানিস্তান ও ইন্দোনেশিয়ার লোকজন রয়েছে। তাদের অপরাধ, মালয়েশিয়ায় অতিরিক্ত অবস্থান ও সঠিক কাগজ না থাকা। বৈধ ভ্রমণ নথির অভাব ও নানা অপরাধের কারণেও বেশ কয়েকজন আটক হয়েছেন।

আটকদের বয়স ২০ থেকে ৫০ এর মধ্যে। প্রয়োজনীয় কার্যক্রম (ডকুমেন্টেশন প্রক্রিয়া) শেষ হওয়ার পর তাদের সেমেনিহ ইমিগ্রেশন ডিপোতে নেওয়া হবে।

দ্যা স্ট্রেইট টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, পুলিশের সঙ্গে যৌথভাবে অবৈধ বিদেশিদের ধরতে এ অভিযান পরিচালনা করে সেলাঙ্গর ইমিগ্রেশন বিভাগ। তাদের সঙ্গে যুক্ত ছিল বুকিত আমান অ্যান্টি-ভাইস, গ্যাম্বলিং ও সিক্রেট সোসাইটিস ডিভিশন (ডি-সেভেন) এবং জেনারেল অপারেশন ফোর্স (পিজিএ)।

আরও পড়ুন>>মিয়ানমারের ছোড়া মর্টার শেল পড়লো বাংলাদেশে

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) মধ্য রাত থেকে জালান আমান পেরদানার মিনি ঢাকায় অভিযানটি শুরু হয়।

খবরে আরও বলা হয়েছে, ওই শিল্প এলাকার একটি পাঁচতলা অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সের সম্পূর্ণটি বিদেশি শ্রমিকে পরিপূর্ণ ছিল। তাদের মধ্যে অনেকেই নথিভুক্ত ছিলেন না। কোনো বৈধ কাগজ না থাকলেও তারা শিল্প এলাকার অ্যাপার্টমেন্টগুলোর নিচে নানারকম ব্যবসা করে আসছিলেন।

অবৈধ বিদেশিদের ধরতে যৌথ অভিযানে যোগ দেয় ৩০০ সশস্ত্র পুলিশ কর্মকর্তা। অ্যাপার্টমেন্টের আটটি ব্লকের মধ্যে চারটিতে অভিযান পরিচালনা করেন তারা। এর আগে পুরো এলাকা রেকি করে সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো।

আরও পড়ুন>>পাকিস্তানে পিটিআই মিছিলে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৪

দ্যা স্ট্রেইট টাইমস বলেছে, পুলিশ অনথিভুক্ত বিদেশিদের আগমনের বিষয়ে তথ্য স্থানীয়দের অভিযোগ ও নানা উপাত্তের মাধ্যমে সংগ্রহ করেছিল। এরপর গত একমাস ধরে মিনি ঢাকা এলাকাটিতে তারা নজরদারি ও তদন্ত চালিয়ে আসছিল।

বুধবার রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে অভিযানটি শুরু হয়। এ সময় বিদেশিদের মধ্যে বেশিরভাগ ঘুমিয়ে ছিল। অভিযানের বিষয়টি টের পেতে তাদের সময় লেগে যায়, তাই তারা পালাতে পারেননি। অনেকে অবশ্য চেষ্টাও করে। কিছু লোক ওই অ্যাপার্টমেন্টের ছাড়ে উঠে ঝাঁপ দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু অভিযানকারী বাহিনী আগে থেকেই সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল।

আরও পড়ুন>>রাশিয়ায় ৬৫ বন্দি নিয়ে প্লেন বিধ্বস্ত

আটক অনথিভুক্ত বিদেশিরা আশপাশের কারখানায় কাজ করা ও মিনি ঢাকাখ্যাত জালান আমান পেরদানার আবাসন ভাড়া নেওয়ার কথা স্বীকার করেছে। এ কাজে তাদের নিয়োগকর্তাদের মধ্যে কয়েকজনও জড়িত।

স্থানীয়রা বলছেন, যারা আটক হয়েছেন তারা সাধারণত আমাদের বিরক্ত করে না। কিন্তু সমস্যা হলো তারা একটু অপরিচ্ছন্ন থাকে। এবং তারা প্রকৃতপক্ষে এখানে অসংখ্য। কখনও কখনও মনে হয় তারা এখানে আমাদের (স্থানীয়) চেয়ে বেশি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

মিয়ানমারের ছোড়া মর্টার শেল পড়লো বাংলাদেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক: মিয়ানমার থেকে ছোড়া মর্টার শেল বাংলাদেশের নাইক্ষ্যংছড়ি লোকালয়ে পড়ার ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক কাটছে না। যে কোনো মুহূর্তে ফের গোলাগুলির আশঙ্কা করছেন তারা। মঙ্গলবার রাতেও অবিস্ফোরিত মর্টার শেল এসে পড়ে।

এ অবস্থায় আজ বুধবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে নাইক্ষ্যংছড়ি ভাজাবনিয়া সীমান্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক শাহ মুজাহিদ উদ্দিন।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের ওপারে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সরকারি জান্তা বাহিনী ও বিদ্রোহীদের মধ্যে থেমে থেমে সংঘাত চলমান। এ সংঘাতে বিভিন্ন সময় নিক্ষিপ্ত গোলা তাদের সীমানা পেরিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ির সীমান্তবর্তী লোকালয়ে এসে পড়ছে।

এতে নিত্যদিনের কাজে ও শিক্ষার্থীদের স্কুলে পাঠাতেও ভয় পাচ্ছেন অভিভাবকরা। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে কোনার পাড়া এলাকায় বিস্ফোরিত মর্টার শেলের খোসা পাওয়া যায়।

মঙ্গলবারও দিনগত রাতে ঘোনারপাড়া এলাকায় মিয়ানমার থেকে নিক্ষিপ্ত অবিস্ফোরিত মর্টার শেল এসে পড়ে। এসব ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে এ পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

ভাজাবনিয়া সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি নূরজাহান বেগম বলেন, সীমান্তের ওপারের গোলাগুলিরও ভারী গোলার শব্দে পুরো এলাকা কেঁপে ওঠে। কোনো সময় আবার গোলাগুলি শুরু হয় তা বলা মুশকিল। এ পরিস্থিতিতে ছেলেমেয়েদের স্কুলে পাঠাতে খুবই ভয় লাগে।

তুমব্রু ঘোনারপাড়া এলাকার বাসিন্দা আবু সিদ্দিক বলেন, মধ্যরাতে গোলাগুলি শুরু হলে ভয়ে কাঁচাঘরের বাসিন্দারা পাড়ার বা কাছাকাছি পাকা দালানে গিয়ে আশ্রয় নেন। গতকাল রাতে যখন আবারও গোলাগুলি শুরু হয় তখন সীমান্ত সড়কের ওপারে আশ্রয় নিয়েছিলাম।

আরও পড়ুন:

সীমান্ত এলাকা পরিদর্শনকালে বান্দরবান জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক রয়েছে। পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে বিপজ্জনক এলাকায় বসবাসকারীদের নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হবে। এসময় স্থানীয়দের আতঙ্কিত না হয়ে সজাগ থাকার পরামর্শ দেন তিনি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

পাকিস্তানে পিটিআই মিছিলে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) মিছিলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ৪ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৫ জন।

আজ মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) জানিয়েছে, তাদের জাতীয় পরিষদের প্রার্থী সাদ্দাম তারিনের একটি নির্বাচনী সমাবেশে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে তাদের তিন কর্মী নিহত ও সাতজন আহত হয়েছেন।

এদিকে সাইফার মামলায় পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশির ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) দেশটির সরকারি গোপনীয়তা আইনের অধীনে একটি বিশেষ আদালত এ রায় দেন।

আরও পড়ুন:

পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি। তার প্রায় এক সপ্তাহ আগে ইমরানের বিরুদ্ধে এই রায় দিলো পাকিস্তানি আদালত। ব্যাপক চাপের মধ্যেও নির্বাচনী আইকনিক ব্যাট প্রতীক ছাড়াই এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)।

google-news-channel-newsasia24

Follow

রাশিয়ায় ৬৫ বন্দি নিয়ে প্লেন বিধ্বস্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউক্রেনের ৬৫ বন্দি নিয়ে রাশিয়ার প্লেন বিধ্বস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। ইউক্রেনের সঙ্গে বিনিময়ের লক্ষ্যে তাদের সীমান্তবর্তী বেলগোরোদ অঞ্চলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।

আজ বুধবার (২৪ জানুয়ারি) রুশ বার্তা সংস্থা আরআইএ-নভোস্তি জানিয়েছে, রুশ সামরিক বাহিনীর একটি আইএল-৭৬ পরিবহন প্লেন পশ্চিম বেলগোরোদ অঞ্চলে বিধ্বস্ত হয়েছে।

প্লেনটিতে আরোহী হিসেবে ৬৫ জন ইউক্রেনীয় যুদ্ধবন্দি, ছয়জন ক্রু এবং তিনজন এসকর্ট ছিলেন। প্লেন বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ অনুসন্ধানে রাশিয়ার মিলিটারি স্পেস ফোর্স ঘটনাস্থলে গেছে।

আরআইএ নভোস্তির খবরে আরও বলা হয়েছে, বুধবার বেলগোরোদের কাছাকাছি ব্লিঝনো গ্রামে একটি ইউক্রেনীয় ড্রোন দেখা গিয়েছিল। এছাড়া, ওই অঞ্চলের গভর্নর ব্যাচেস্লাভ গ্ল্যাডকভ তার টেলিগ্রাম চ্যানেলের মাধ্যমে সম্ভাব্য ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সতর্কতা জারি করেন।

আরও পড়ুন:

পরে কোরোচানস্কি জেলায় গুরুতর জরুরি অবস্থার কথাও জানিয়েছেন তিনি। তবে এসব বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

রাশিয়ার বেলগোরোদ অঞ্চলটি ইউক্রেনের সঙ্গে সীমান্তবর্তী। ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনী এই অঞ্চলে নিয়মিত গুলিবর্ষণ করে থাকে। এর জেরে সেখানে ‘সন্ত্রাসী হামলার’ উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে বলে উল্লেখ করে থাকে রাশিয়া।

google-news-channel-newsasia24

Follow

আফগানিস্তানে বিধ্বস্ত হওয়া উড়োজাহাজের ৪ জন জীবিত উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানে বিধ্বস্ত হওয়া উড়োজাহাজের পাইলটসহ চার যাত্রীকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।এ তথ্য রাশিয়ার উড়োজাহাজ চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানান, উড়োজাহাজে থাকা বাকি দুজন যাত্রী নিহত হয়েছেন।

তালেবানের প্রাদেশিক সরকারের দুই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, জীবিত ব্যক্তিদের মধ্যে প্লেনের পাইলট রয়েছেন। দুর্গম পাহাড়ি এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার চারজন বর্তমানে তালেবান প্রশাসনের হেফাজতে রয়েছেন।

আরও পড়ুন:

রাশিয়ার বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, উড়োজাহাজটি চার্টার্ড অ্যাম্বুলেন্সের ফ্লাইট ছিল। ফ্লাইটটি ভারত থেকে উজবেকিস্তান হয়ে মস্কোর দিকে যাচ্ছিল। এ সময় আফগানিস্তানের সীমানার ভেতরে এসে সিগন্যাল হারিয়ে বিধ্বস্ত হয়েছে বিমানটি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

বাড়িওয়ালির স্বামীকে নিয়ে পালালেন ভাড়াটিয়া তরুণী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গ্রাম  থেকে শহরে চাকরির পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন এক তরুণী। এ সময় তার সঙ্গে আলাপ হয় এক নারী কনস্টেবলের। মেয়েটি নিজের গ্রামের জেনে তাকে বাড়িতে থাকতে দেন তিনি। চাকরি পাবার পর কনস্টেবলের স্বামীর সঙ্গেই পালিয়ে গেলেন সেই তরুণী।

ঘটনাটি ঘটে বিহারের পাটনা শহরে। ওই তরুণী বিহার পাবলিক সার্ভিস কমিশন পরীক্ষা দিয়ে শিক্ষিকার চাকরি পেয়েছেন। তার এই কীর্তির খবর প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে গেছে। ইতোমধ্যে স্থানীয় থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন বাড়িওয়ালি নারী।

জানা গেছে, পাটনার দারভাঙায় দুই বছরের মেয়ে এবং স্বামীকে নিয়ে সুখের সংসার ছিল বাড়িওয়ালির। কিছুদিন আগে উত্তরপ্রদেশে থেকে আসা একটি মেয়েকে বাড়ি ভাড়া দেন তিনি।

আরও পড়ুন:

তাদের বাড়িতে থেকেই চাকরি পান তরুণী। এরপর সব কিছু ঠিকঠাক চলছিল। তবে মাসখানেক পর আচমকাই গায়েব হয়ে যান তরুণী। একইদিন থেকে নিখোঁজ ছিলেন বাড়িওয়ালির স্বামীও। এ সময় দুজনের ফোনও বন্ধ ছিল।

বাড়িওয়ালির অভিযোগ, অনেক খুঁজেও স্বামী এবং তরুণীর সন্ধান পাননি। একপর্যায়ে স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা হয় তার। এ সময় তিনি স্ত্রীকে ডিভোর্সের কথা বলেন। এরপর আর বুঝতে বাকি থাকে না তার স্বামীই তরুণীকে নিয়ে পালিয়েছেন। এরপরই দুই বছরের শিশুকে নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন বাড়িওয়ালি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

যুক্তরাষ্ট্রে ডাকাতির ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে বাংলাদেশি শিক্ষার্থী নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উচ্চশিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করত শেখ আবির হোসেন (৩৪) নামের এক শিক্ষার্থী। তিনি টেক্সাসের বিউমন্টে একটি দোকানে ডাকাতির ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন।

গত শুক্রবার টেক্সাসের ক্রিস ফুড মার্টে তিনি নিহত হন। সেখানে তিনি স্টোর ক্লার্ক হিসেবে কাজ করতেন। দোকান থেকে সিগারেট নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই সন্দেহভাজন তাকে গুলি করে।

A-Bangladeshi-student-was-shot-dead-in-a-robbery-incident-in-the-United-States-newsasia24

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এই শিক্ষার্থী গত জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রে যান। তিনি লামার ইউনিভার্সিটিতে গবেষণা সহকারী ছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের চ্যানেল কেএফডিএম জানায়, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আবিরকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়।

আরও পড়ুন:

আবিরের বড় ভাই জাহিদুল ইসলাম শনিবার সন্ধ্যায় সংবাদমাধ্যমকে জানান, নিউইয়র্কে বসবাসরত এক পরিবারের সদস্য তার ভাইয়ের মৃত্যুর খবর তাকে জানান।

বিউমন্ট পুলিশ এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পরে সন্দেহভাজন একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

google-news-channel-newsasia24

Follow