শিরোনাম

শীর্ষ সংবাদ

টাঙ্গাইলে গরুভর্তি পিকআপের চাপায় মৃত্যু দাখিল পরীক্ষার্থী

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গরুভর্তি পিকআপের চাপায় হাফেজ রায়হান মিয়া (১৯) নামে এক দাখিল পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পোষ্টকামুরী চরপাড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রায়হান মিয়া উপজেলার ভাওড়া ইউনিয়নের ভাওড়া নায়াপাড়া গ্রামের স্কুল শিক্ষক হাবিবুর রহমানের ছেলে। তিনি এবছর মির্জাপুর আফাজ উদ্দিন দারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।

পুলিশ জানায়, রায়হান মিয়া সকালে তার বাবা হাবিবুর রহমানের সাথে মোটরসাইকেলযোগে পরীক্ষা দিতে আসছিলেন এবং তার বাবা বাশতৈল কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার ডিউটি ছিল।

আরও পড়ুন:

পথিমধ্যে মহাসড়কের ওই স্থানে পৌঁছালে সিএনজিচালিত অটোরিকশা মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে রায়হান ও তার বাবা মোটরসাইকেল থেকে পড়ে যায়। এসময় একটি গরুভর্তি পিকআপ রায়হানকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। দুর্ঘটনায় রায়হানের বাবা আহত হন।

মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হবে।

google-news-channel-newsasia24

Follow

আজ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবস

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: আজ অমর ২১ ফেব্রুয়ারি, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। বাঙালি জাতির জীবনে এক অবিস্মরণীয় দিন। ৭১ বছর আগে ১৯৫২ সালের এই দিনে মাতৃভাষার জন্য রক্ত দিয়েছিলেন সালাম, বরকত, রফিক, জব্বারসহ অনেকে।

সারা দেশে শহীদ মিনারে ভাষাশহীদদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে ।

google-news-channel-newsasia24

সোমবার প্রথম প্রহরে রাত ১২টা ১ মিনিটে ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যে দিয়ে অমর একুশের কর্মসূচি শুরু হয়েছে। এছাড়া, কালো ব্যাজ ধারণ, প্রভাতফেরি সহকারে আজিমপুর কবরস্থানে ভাষাশহীদদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে।

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে পৃথক বাণী দিয়েছেন।

আরও পড়ুন:

জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সাংস্কৃতিবিষয়ক সংস্থা (ইউনেস্কো) ভাষাশহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি দেওয়ার পর কয়েক বছর ধরে থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দিবসটি পালিত হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) নামাজের সময়সূচি

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক:  আজ মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ২০২৪, ৭ ফাল্গুন ১৪৩০ , ৯ শাবান ১৪৪৫। ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার নামাজের সময়সূচি নিম্নরূপ-

আজকের নামাজের সময়সূচি-

আজ সূর্যোদয়- ৬: ২৮মিনিট

আজ সূর্যাস্ত- ৫:৫৯ মিনিট

ফজর- ৫:১৩ মিনিট

জোহর- ১২:১৫ মিনিট

আসর- ৪:২০ মিনিট

মাগরিব- ৫:৫৯ মিনিট

এশা- ৭:১১ মিনিট

সকল বিভাগীয় শহরের জন্য উপরের সময়ের সঙ্গে যে সময় যোগ-বিয়োগ করতে হবে, তা নিম্নরূপ:

যোগ করতে হবে যেসব বিভাগের জন্য-

খুলনা: +০৩ মিনিট

রাজশাহী: +০৭ মিনিট

রংপুর: +০৫ মিনিট

বরিশাল: +০১ মিনিট

বিয়োগ করতে হবে যেসব বিভাগের জন্য-

চট্টগ্রাম: -০৮ মিনিট

সিলেট: -০৬ মিনিট

আরও পড়ুন:

google-news-channel-newsasia24

Follow

অবশেষে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিলো ভারত

নিজস্ব প্রতিনিধি: বাংলাদেশে সীমিত পরিমাণে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারত। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশের ভিত্তিতে এই অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশের সঙ্গে সঙ্গে শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান, বাহরাইন এবং মরিশাসেও পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে মোদী সরকার। তবে পেঁয়াজ রফতানির ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা সম্পূর্ণ প্রত্যাহার করে নেয়ার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি নয়াদিল্লি।

আজ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইকোনমিক টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বাংলাদেশের পাশাপাশি আরও কয়েকটি দেশে সরকারিভাবে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারত।

বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ভারতীয় একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, দ্বিপক্ষীয় উদ্দেশে এসব দেশে সীমিত পরিমাণে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে ঠিক কী পরিমাণ পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তা জানাতে পারেননি এই কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন>>কুড়িগ্রামে গলায় ফাঁস দিলেন ঋণগ্রস্ত প্রধান শিক্ষক!

এর আগে, পবিত্র রমজান মাসে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমাতে ভারতকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দিয়েছিল বাংলাদেশ সরকার।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয় নিজ দপ্তরে বাংলাদেশের বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু সাংবাদিকদের জানান, রোজার আগেই ভারত থেকে দেড় লাখ টন চিনি ও পেঁয়াজ আমদানি করা হবে।

তিনি বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ ও চিনি আসবে বলে আমরা প্রত্যাশা করছি। ভারত সফরে গিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ বিষয়ে আশ্বস্ত হয়েছেন। আশা করি, আগামী সোমবার থেকে বৃহস্পতিবারের মধ্যে আমরা একটি ভালো খবর পাবো।

আরও পড়ুুুন>>আওয়ামী লীগ কর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

এক্ষেত্রে ভারতের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক ১৪ ফেব্রুয়ারি হওয়ার কথা ছিল উল্লেখ করে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জার্মানিতে থাকায় বৈঠকটি হতে একটু দেরি হচ্ছে। আশা করছি, সোম থেকে বৃহস্পতিবারের মধ্যে কোনো এক সময় তারা বৈঠকে বসবেন।

বিশ্ব বাজারের দ্বিতীয় বৃহত্তম পেঁয়াজ রপ্তানিকারক ভারত। গত বছরের ডিসেম্বরে স্থানীয় বাজার স্থিতিশীল রাখতে পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দেশটির সরকার।

আরও পড়ুন>>মিরপুরে ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন

জাতীয় নির্বাচনের আগে ভারতের বাজারে ক্রমবর্ধমান মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ ও পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে দ্বিতীয় দফায় আগামী মার্চ পর্যন্ত পেঁয়াজ রপ্তানির নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ায় দেশটি।

রপ্তানি নিরুৎসাহিত করতে দেশটির সরকার প্রথমে পেঁয়াজের ওপর ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করে। তারপরও আশানুরূপ ফল না মেলায় পেঁয়াজের রপ্তানি পুরোপুরি নিষিদ্ধ করে ভারত।

google-news-channel-newsasia24

Follow

কুড়িগ্রামে গলায় ফাঁস দিলেন ঋণগ্রস্ত প্রধান শিক্ষক!

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন প্রভাত চন্দ্র বর্মণ (৫০) নামের এক প্রধান শিক্ষক ।

আজ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে নিজ বাড়িতে তিনি আত্মহত্যা করেন। ঘটনার পরপরই পরিবারের লোকজন তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত শিক্ষক প্রভাত চন্দ্র নাজিম খান ইউনিয়নের সোমনারায়ণ গ্রামের মৃত বিষাদু চন্দ্র বর্মণের ছেলে ও শিমূল তলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সমাজ তান্ত্রিক দল বাসদের রাজারহাট উপজেলা শাখার সভাপতি বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিহত ওই প্রধান শিক্ষক অনেক ঋণগ্রস্ত ছিলেন। পাওনাদারদের চাপে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। এ নিয়ে পরিবারের সঙ্গেও বিবাদ সৃষ্টি হয় তার। এসব দুশ্চিন্তায় তিনি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা স্থানীয়দের।

আরও পড়ুন:

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা ধারণা করছি এটি একটি আত্মহত্যা। তার পরেও আমরা তদন্ত সাপেক্ষে বিষয়টির আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

google-news-channel-newsasia24

Follow

আওয়ামী লীগ কর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার ধুনট উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের কর্মী মুন্নি আকতার (২৫) নামে এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ধুনট সদরের টাওয়ারপট্টি এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সন্ধ্যায় ধুনট থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহত মুন্নি আকতার এলাঙ্গী ইউনিয়নের হাসাপোটল পশ্চিমপাড়া এলাকার মোয়াজ্জেম হোসেনের মেয়ে এবং উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের কর্মী ছিলেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

ধুনট থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মুন্নি আকতারের ডিভোর্সের পর ৫ বছর বয়সী মেয়েকে নিয়ে বাবার বাড়িতে বসবাস করতেন। এরপর গত এক বছর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া এলাকার সৌদিপ্রবাসী এক ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ে হয়।

আরও পড়ুন>>মিরপুরে ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন

তার স্বামী বিদেশ যাওয়ার পর গত ৪ মাস আগে মুন্নি আকতার ধুনট সদরের টাওয়ারপট্টি এলাকার শহিদুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ীর দ্বিতল ভবনের একটি ইউনিট ভাড়া নিয়ে মেয়ের সঙ্গে বসবাস করে আসছিলেন।

আজ সোমবার দুপুর ২টার দিকে ওই ভাড়া বাসার পাশেরই একটি ভবনের ছাদ থেকে প্রতিবেশীরা জানালা দিয়ে মুন্নির ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পায়। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙে মুন্নির মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে।

আরও পড়ুন>>ভিক্ষা করে জমি কিনে দোতালা বাড়ি, মোটা অঙ্কের টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট!

ধুনট উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা জাহান জানান, মুন্নির কোনো পদবি না থাকলেও সে মহিলা আওয়ামী লীগের একজন কর্মী ছিল।

ধুনট থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

মিরপুরে ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন

ঢাকা প্রতিনিধি: রাজধানীর মিরপুর ১২ নম্বরের ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন লেগেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট।

আজ সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে এই আগুন লাগার খবর পাওয়া যায়। আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি। এছাড়া এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

বিস্তারিত আসছে….

আরও পড়ুন:

google-news-channel-newsasia24

Follow

ভিক্ষা করে জমি কিনে দোতালা বাড়ি, মোটা অঙ্কের টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট!

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ভিক্ষাবৃত্তি শুধু পেটের দায়ে নয়, কিছু মানুষ এটিকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন। তেমনি এক ভিক্ষুকের আয়ের কথা জানলে আপনার চোখ কপালে উঠবে! তিনি ভিক্ষার টাকায় জমি কিনে দোতলা বাড়ি তৈরি করেছেন। দামি মোটরসাইকেলও আছে তার। এছাড়াও দামি স্মার্টফোনও ব্যবহার করেন তিনি।

অন্যদিকে, মাস শেষে মোটা অঙ্কের টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট করেন। সম্পত্তির এই পরিসংখ্যান ভারতের এক ভিখারির। তার নাম ইন্দিরা বাই। তিনি বছরে ২০ লাখ টাকা উপার্জন করেন।

শুধু যে নিজে ভিক্ষাবৃত্তি করেন, বিষয়টা তা নয়। ভিক্ষায় নিয়োজিত করেছেন নিজের তিন সন্তানকেও। এদের মধ্যে তার আট বছরের মেয়েও আছে।

ভারতের ইন্দোর শহরের এই ভিখারি তিন সন্তানকে ‘জোর করে’ ভিক্ষা করানোর দায়ে সম্প্রতি পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন। এরপরেই তার সম্পত্তির হিসাব-নিকাশ সামনে আসতে শুরু করেছে।

স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, আটক করার সময় ইন্দিরার কাছে ছিল ১৯ হাজার ২০০ টাকা। ওই টাকা মাত্র ৭ দিনের উপার্জন বলে জানিয়েছেন তিনি। যা অনেকাংশে কর্পোরেট চাকরির বেতনের থেকেও বেশি। এছাড়াও ইন্দিরা ও তার পরিবারের রয়েছে জমি, বাড়ি, গাড়ি, স্মার্টফোন-সহ অন্যান্য ত্যাধুনিক বৈদ্যুতিন জিনিসপত্র।

আরও পড়ুন: 

ভারতের মধ্যপ্রদেশ সরকার শহরগুলোকে ভিক্ষুক মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই কাজ করতে গিয়েই চাঞ্চল্যকর এই তথ্য বেরিয়ে আসে। এমন গল্প শুধু ইন্দিরা বাইয়ের নয়, মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর শহরে ৭০০০-এর বেশি মানুষের পেশা ভিক্ষাবৃত্তি। যারা ইন্দোরের ৯৮.৭ শতাংশ মানুষের থেকে বেশি উপার্জন করেন।

ইন্দিরা বাইয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। আট বছরের মেয়েটিকে শিশুদের জন্য হোমে পাঠানো হয়েছে।

google-news-channel-newsasia24

আফগানিস্তানে ‘জীবন্ত বস্তুর’ ছবি তোলা নিষেধ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের কান্দাহারে যেকোনো ধরনের ‘জীবন্ত বস্তুর’ ছবি তোলা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

আজ রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে লেখা এক চিঠিতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। কান্দাহার প্রদেশটিকে বলা হয় তালেবানের জন্মস্থান।

আজ রবিবার প্রাদেশিক স্বরাষ্ট্র দপ্তর এক চিঠিতে বলেছে, আনুষ্ঠানিক-অনানুষ্ঠানিক সমাবেশগুলোতে যেন ‘জীবন্ত বস্তুর’ ছবি তোলা থেকে সবাই বিরত থাকে। কারণ এতে ‘উপকারের চেয়ে অপকারই বেশি’ হয়।

আফগানিস্তানে তালেবানের আগের শাসনামলে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত জীবন্ত বস্তুর ছবি তোলা নিষিদ্ধ ছিল। বছর দুয়েক আগে তারা দক্ষিণ এশীয় দেশটির ক্ষমতায় ফেরার পর থেকে স্থানীয় বেশ কিছু মিডিয়া মানুষ ও পশুপাখির ছবি ব্যবহার বন্ধ রেখেছে।

আরও পড়ুন:

এএফপি জানিয়েছে, কান্দাহারে জীবন্ত বস্তুর ছবি তোলা থেকে বিরত থাকার নির্দেশের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন প্রাদেশিক গভর্নরের একজন মুখপাত্র। তবে নিয়মটি কতটা কঠোর ও কীভাবে কার্যকর করা হবে তা স্পষ্ট নয়। এ বিষয়ে তালেবান প্রশাসনের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

ব্রকলির এই উপকারিতা জানলে চমকে উঠবেন!

লিমা পারভীন: শীতকালীন সবজি ব্রকলি। অনেকটা ফুলকপির মতো দেখতে সবুজ রঙের এই সবজি। বর্তমানে চায়নিজ খাবারের পাশাপাশি দেশি খাবারেও ব্যবহৃত হচ্ছে ব্রকলি। কাঁচা বা রান্না করে খাওয়া যায় এই সবজি।

ব্রকলি সাধারণত ক্রসিফেরী গোত্রের শীতকালীন সবজি। এতে ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, ফোলেট, আঁশ আছে। এতে ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস থাকায় হৃদরোগ, বহুমূত্র এবং ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

ব্রকলিতে উচ্চমাত্রার ভিটামিন সি পাওয়া যায়। মার্কিন ফুডডাটা সেন্ট্রালের তথ্য মতে দিনে মাত্র ১০০ গ্রাম ব্রকলি শরীরে প্রতিদিনের ভিটামিন সি এর চাহিদার ১৫০% পূরণ হতে পারে।

Benefits-of-Broccoli2-newsasia24

আসুন জেনে নিই ব্রকলির ৬ টি উপকারিতা:

১. ভিটামিন সি: লেবুর দ্বিগুণ ও আলুর সাত গুণ ভিটামিন সি ব্রোকলিতে। বলা হয়, যাঁদের ভিটামিন সি দরকার, তাঁরা অল্প করে হলেও ব্রোকলি প্রতিদিন খেতে পারেন। এছাড়া, ভিটামিন সি দেহে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দেহের ক্ষতিকর ফ্রি-র‍্যাডিক্যালস দূর করে।

২. ক্যান্সার প্রতিরোধ: ব্রোকলির বিটা ক্যারোটিন ও সেলিনিয়াম যৌথ ও ভিটামিন সি প্রোস্টেট, কোলন, ফুসফুস, যকৃত, স্তন ও প্যানক্রিয়াটিক ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে সাহায্য করে। এছাড়া ব্রকলির মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে বায়োঅ্যাক্টিভ যৌগ।

আরও পড়ুন>>কালচে ঠোট গোলপি করার ১০টি কার্যকরী ঘরোয়া উপায় এবং টিপস

৩. ত্বক ভালো রাখে: ক্ষতিগ্রস্ত ত্বকের টিস্যু মেরামত করে এবং ত্বক উন্নত করতে ব্রকলিতে থাকা গ্লুকোরাফানিন বৈশিষ্ট্য অনন্য। ব্রকলিতে রয়েছে ভিটামিন কে ও ভিটামিন সি, যা চুল ও ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে থাকে। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতেও সাহায্য করে থাকে।

৪. ওজন নিয়ন্ত্রণ: ওজন কমানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে ব্রকলি। এতে ফাইবার ও পানির পরিমাণ বেশি থাকায় এটি খেলে অন্য খাবারের আসক্তি কমে। বেশি আয়রন থাকায় ডায়েটের সময় ব্রোকলি খেলে ঝিম ধরা ভাব দূর হয়।

আরও পড়ুন>>মন খুলে কান্না করুন সুস্থ থাকুন

৫. হার্ট ভালো রাখে: সালফোরাফেন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ভালো কোলেস্টেরল এইচডিএলের মাত্রা বাড়িয়ে হৃৎপিণ্ডকে বিভিন্ন হৃদরোগের থেকে রক্ষা করে। ব্লাড সুগারের মাত্রা কমায়। এছাড়া গ্যাসট্রিক আলসার ও গ্যাসট্রাইটিস প্রতিরোধে দারুণ কার্যকর ব্রোকলি।

৬. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়াজনিত সংক্রমণ, জ্বর, মুখের ঘা, সর্দি-কাশি ইত্যাদি আরও অনেক রোগ প্রতিহত করে। এতে থাকা সেলিনিয়াম দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

ব্রকলি যেভাবে খাবেন:
ব্রকলি কাঁচা বা সিদ্ধ করে খেলে বেশি উপকার পাওয়া যায়। ব্রকলি অনেকক্ষণ ধরে রান্না করলে এর পুষ্টি উপাদান হ্রাস পায়। তাই এটি ভাপে সেদ্ধ করা ভালো।এছাড়া সালাদ বা স্যুপ বানিয়েও ব্রকলি খাওয়া যায়। তবে একটানা না খেয়ে সপ্তাহে ৩-৪ দিন খেলে পুষ্টিগুণ পর্যাপ্ত পাওয়া যাবে।

google-news-channel-newsasia24

Follow