Deprecated: Function Automattic\Jetpack\Assets::add_async_script is deprecated since version 2.1.0 with no alternative available. in /home/newsasia24/public_html/wp-includes/functions.php on line 6031
আন্তর্জাতিক Archives - newsasia24.com
শিরোনাম

আন্তর্জাতিক

দক্ষিণ আফ্রিকায় খাদে পড়ে বাসে আগুন, নিহত ৪৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকায় যাত্রীবাহী একটি বাস সেতু থেকে খাদে পড়ে আগুন ধরে ৪৫ জন নিহত হয়েছেন।

ভয়াবহ এ দুর্ঘটনায় কেবল আট বছর বয়সী এক শিশু বেঁচে আছে। গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার (২৯ মার্চ) এক প্রতিবেদনে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দক্ষিণ আফ্রিকার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের লিম্পোপো রাজ্যে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন:

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মামাতলাকালা এলাকার কাছে বাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি সেতুর নিরাপত্তা বেষ্টনীতে আঘাত হানেন। এতে বাসটি সেতু থেকে নিচে পড়ে আগুন ধরে গেলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

google-news-channel-newsasia24

দক্ষিণ আফ্রিকায় অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীসহ বাংলাদেশি যুবককে হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানের্সবাগে এক বাংলাদেশি যুবক ও তার সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। রবিবার (৩ মার্চ) স্থানীয় সময় সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মো. মহিন ভূঞা (৩২) ও তার স্ত্রী রুনা আক্তার (২২)। তারা নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার অর্জুনতলা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর মানিকপুর গ্রামের বাসিন্দা।

মহিন ওই গ্রামের মো. হোসেন ভূঞার ছেলে। রুনা একই উপজেলার কেশারপাড় ইউনিয়নেরে মো. লিটনের মেয়ে। স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর জব্বার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রবিবার সন্ধ্যার দিকে মহিন ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গুলি করে সন্ত্রাসীরা। দ্রুত তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। সেসময় তাদের সঙ্গে থাকা দুই শিশু সন্তান ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায়।

আরও পড়ুন:

নিহতের ছোট ভাই মো. মফিজ ভূঞা বলেন, জীবিকার সন্ধানে বড় ভাই মহিন ২০০৮ সালে প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকা যায়। ছয় বছর আগে তার স্ত্রীকে নিয়ে যায়। ভাবি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। সন্ত্রাসীরা ভাবিসহ বড় ভাইকে গুলি করে হত্যা করেছে।

সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জিসান বিন মাজেদ বলেন, প্রবাসে যারা মারা যান, তাদের লাশ দেশে আনা এবং দাফন করার জন্য একটি ওয়েজবোর্ড আছে। আমরা সেই ওয়েজবোর্ডের মাধ্যমে তাদের লাশ আনা এবং দাফনের ব্যবস্থা করব।

google-news-channel-newsasia24

Follow

মালয়েশিয়ায় ট্রেনের ধাক্কায় তিন বাংলাদেশি নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মালয়েশিয়ায় ট্রেনের ধাক্কায় তিন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। রবিবার (৩ মার্চ) রাতে সেলাঙ্গর রাজ্যের কাজাং কেটিএম পুনচাক উতামা জেড হিল ট্র্যাকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ‘রাত সোয়া ১২টার দিকে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্থান্তর করা হয়েছে।’

সেলাঙ্গর রাজ্যের জেপিবিএম পরিচালক ওয়ান মো. রাজালি ওয়ান ইসমাইল জানান, রাত ১০টা ৫৩ মিনিটে দুর্ঘটনার খবর পান তারা। এরপর কাজাং স্টেশন থেকে পাঁচজনের একটি দলকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন:

তিনি বলেন, নিহতদের মরদেহ রেললাইনের পাশে পড়েছিল। তাদের বয়স ৩০ থেকে ৪০ বছর। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নিহত বাংলাদেশিদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশিকে ধরিয়ে দিতে ২০ হাজার ডলার পুরস্কারের ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) ঘোষণা দিয়েছেন, অপহরণ চক্রের সদস্য এক বাংলাদেশিকে ধরিয়ে দিলে ২০ হাজার মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে।

অভিযুক্ত ওই বাংলাদেশির নাম রুহেল চৌধুরী। তার বিরুদ্ধে নিউইয়র্কে দুজনকে অপহরণ, নির্যাতন, যৌন নিপীড়ন এবং মুক্তিপণের জন্য হুমকি দেওয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক ডেইলি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর কুইন্সের রাস্তা থেকে দু’জনকে অপহরণের ঘটনায় জড়িত সাতজন সন্দেহভাজনের মধ্যে ৩৪ বছর বয়সী রুহেল চৌধুরী হচ্ছে শেষ ব্যক্তি।

এফবিআইয়ের তথ্য অনুসারে, ৩৪ বছর বয়সী আবু চৌধুরী এবং তার স্ত্রী ২৪ বছর বয়সী ইফফাত লুবনাসহ আরও ছয়জন ষড়যন্ত্রকারীকে গত বছর এবং চলতি বছরের জানুয়ারিতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন>>পাকিস্তানে ১৩ বছরে বিয়ে করলো এক কিশোর!

ফেডারেল প্রসিকিউটরদের অভিযোগ, গত বছরের ২৭ মার্চ জ্যামাইকার হিলসাইড এভিনিউয়ের কাছে ১৮১তম সেন্ট থেকে অপহরণকারীরা প্রথম এক ব্যক্তিকে তুলে নেয়।

রুহেল চৌধুরী ব্যবহৃত গাড়ির ব্যবসা করেন এবং তার সরবরাহ করা একটি হোন্ডা এসইউভিতে জোর করে ভুক্তভোগীকে তুলে নেন আবু চৌধুরী।

পরে আবু চৌধুরী ভুক্তভোগীকে গাড়ির মধ্যে মারধর করেন এবং রুহেল চৌধুরী এসময় নিজেই ওই গাড়িটি চালাচ্ছিলেন বলেও জানিয়েছেন প্রসিকিউটররা।

আরও পড়ুন>>বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নাবালিকা কে একযুগ ধরে ধর্ষণ

প্রসিকিউটররা বলছেন, সন্দেহভাজন সৈয়দ রুবেল আহমেদ, শাহেদ আলম, আনজু খান এবং সুলতানা রাজিয়াকে সঙ্গে নিয়ে রুহেল চৌধুরী সারারাত ভিকটিমকে মারধর করার পাশাপাশি হুমকিও দেন।

এফবিআই জানায়, অভিযুক্ত লুবনা গত বছরের ১১ মে কুইন্সের উডসাইডে একটি রেস্তোরাঁয় দ্বিতীয় এক ভুক্তভোগীকে ডেকে আনে। ফেডারেল তদন্তকারীরা বলছেন, সেখানে লুবনার স্বামী লোকটিকে অতর্কিত আক্রমণ করে এবং তাকে একটি মিনিভ্যানে জোর করে নিয়ে যায়।

এই গাড়িটিও রুহেল চৌধুরী সরবরাহ করেছিলেন এবং তিনি নিজেই সেটি চালাচ্ছিলেন। পরে রুহেল চৌধুরী ভিকটিমকে একটি হোটেলে নিয়ে গেলে তার সহযোগীরা ভিকটিমকে মারধর করে।

আরও পড়ুন>>বারাক ওবামার মেয়ে এখন হলিউডে

এছাড়া হোটেলে আবু চৌধুরী ওই ব্যক্তিকে যৌন হয়রানি করেছিলেন বলেও দাবি করেছেন প্রসিকিউটররা।

অপহরণের এক পর্যায়ে আবু চৌধুরী ভিকটিমের বাবাকে ফোন করে ২০ হাজার মার্কিন ডলার মুক্তিপণ দাবি করে।

তদন্তকারীর অভিযোগ, ফোন কলের সময় আবু চৌধুরী টেলিফোনের মাধ্যমে তার চিৎকার যেন শোনা যায়, তা নিশ্চিত করতে ভিকটিমকে প্রচণ্ড মারধর করেন।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, গত বছরের জুলাই মাসে অপহরণের অভিযোগে অভিযুক্ত হন আবু চৌধুরী ও ইফফাত লুবনা।

আরও পড়ুন>>ভিক্ষা করে জমি কিনে দোতালা বাড়ি, মোটা অঙ্কের টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট!

আর এফবিআইয়ের নোটিশে রুহেল চৌধুরীকে বাংলাদেশের বাসিন্দা বলে উল্লেখ করে কুইন্সের হলিস, কুইন্স ভিলেজ এবং জ্যামাইকা এলাকায় তার যাতায়াত রয়েছে বলে জানানো হয়। তার উচ্চতা ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি, ওজন ১৫০ পাউন্ড এবং চোখের রঙ বাদামী বলেও জানানো হয়েছে।

কেউ তাকে দেখতে পেলে সঙ্গে সঙ্গে তাদের স্থানীয় এফবিআই অফিসে যোগাযোগ করতেও বলা হয়েছে।

google-news-channel-newsasia24

Follow

পাকিস্তানে ১৩ বছরে বিয়ে করলো এক কিশোর!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ১৩ বছর বয়সে বিয়ে করে ভাইরাল হয়েছে পাকিস্তানের এক কিশোর। ছেলেটি তার পরিবারকে বিয়ের জন্য খুব চাপ দিয়েছিল। সেই কারণে বাধ্য হয়ে তার মা-বাবা তাকে বাগদান করিয়েছেন।

বিয়ের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। এই নিয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়েছে, ভিডিওটির ছেলেটির বয়স ১৩ বছর, সে সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। আর মেয়েটির বয়স ১২ বছর, সে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী।

তারা পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের বাসিন্দা। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। ওই কিশোর হঠাৎ তার পরিবারের কাছে দাবি করে, বিয়ে না দিলে সে আর স্কুলে যাবে না। আর এমন দাবির মুখে দুই পরিবারের সম্মতিতে তাদের বাগদান সম্পন্ন হয়েছে।

আরও পড়ুন>>বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নাবালিকা কে একযুগ ধরে ধর্ষণ

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, পরিবারের লোকেদের উপস্থিতিতেই বাগদান সেরেছে দু’জনে। বর-কনের বাবা-মায়েরাও তাদের ছেলে-মেয়ের আংটি বদল হতে দেখে বেশ খুশি।

এই বিয়ে নিয়ে নেটিজনদের অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এমন ভিডিও বাল্যবিবাহে প্ররোচিত করবে বলে মত তাদের।

পরিবারের লোকজন জানান, ছেলেটি মেয়েটিকে বেশকিছু দিন ধরেই পছন্দ করতো। সে বাবাকে বলে, তার বিয়ে না দিলে সে আর স্কুলে যাবে না। ছেলের আবদার ফেলতে পারেননি বাবা। ধুমধাম করে বাগদানের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন তিনি।

আরও পড়ুন>>বারাক ওবামার মেয়ে এখন হলিউডে

নেটিজনদের সমালোচনার জবাবে ওই কিশোর-কিশোরী সাংবাদিকদের জানান, লোকেরা তাদের বিয়ে নিয়ে কী বলছে, তা নিয়ে তারা ভাবতে নারাজ। বাগদানের পরও তারা নিয়ম করে স্কুলে যাবে। দু’জনের জন্যই পড়াশোনা শেষ করা সবচেয়ে বেশি জরুরি বলে জানায় তারা।

google-news-channel-newsasia24

Follow

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নাবালিকা কে একযুগ ধরে ধর্ষণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ভারতীয় অভিনেতা-নির্মাতা-প্রযোজক মনোজ রাজপুতকে। শুক্রবার দেশটির ছত্রিশগড়ের ভিলাই থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, ২৯ বছর বয়সী ভুক্তভোগী নারী মনোজ রাজপুতের আত্মীয়। গত ১৩ বছর ধরে ভুক্তভোগী নারী যৌন নির্যাতনের শিকার বলে অভিযোগ করেছেন।

দেশটির রেলওয়ে থানার এসএইচও (স্টেশন হাউজ অফিসার) রাজকুমার বোর্ঝ বলেন, ‘গত ২২ ফেব্রুয়ারি পুরোনো ভিলাই রেলওয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী নারী।

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১১ সাল থেকে ওই নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে আসছেন রাজপুত। কিন্তু সে তার প্রতিশ্রুতি না রাখায় পুলিশের দ্বারস্থ হন ওই নারী।’

আরও পড়ুন:

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬, ৩৭৭ এবং পকসো ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। প্রথমবার যখন শারীরিক সম্পর্ক করেন তখন ভুক্তভোগী নারী নাবালিকা ছিলেন। এজন্য পকসো ধারা মামলায় যুক্ত করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশ অফিসার রাজকুমার বোর্ঝ।

‘গাঁও কে জিরো, শহর মে হিরো’সহ একাধিক সিনেমার মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মনোজ। তার রিয়েল এস্টেটের ব্যবসা রয়েছে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনা ও পরিচালনা সঙ্গেও যুক্ত তিনি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

বারাক ওবামার মেয়ে এখন হলিউডে

বিনোদন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কন্যা মালিয়া ওবামা নাম লেখালেন হলিউডে। তবে অভিনয়ে নয়, নির্মাতা হিসেবে এই যাত্রা শুরু করলেন মিশেল ওবামা-বারাক ওবামার বড় মেয়ে।

২৫ বছর বয়সী মালিয়া ‘দ্য হার্ট’ শিরোনামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। এটি রচনাও করেছেন তিনি। গেল ১৮ জানুয়ারি সানড্যান্স ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শনীর মাধ্যমে নির্মাতা হিসেবে মালিয়ার অভিষেক ঘটে।

এ উৎসবের একটি ভিডিও ক্লিপ সামনে এসেছে। তাতে চলচ্চিত্রটির বিষয়ে বর্ণনা করেন মালিয়া। আর সেখানে জানানো হয়, মালিয়া ওবামা তার নামের শেষাংশ ‘ওবামা’ বাদ দিয়ে ‘অ্যান’ যুক্ত করেছেন।

অর্থাৎ তার পুরো নাম এখন মালিয়া অ্যান। তবে কী কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মালিয়া, তা জানা যায়নি।

আরও পড়ুন:

জানা গেছে, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিল্ম মেকিং বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন মালিয়া। হলিউডে অভিষেকের আগে মালিয়া এইচবিওর ড্রামা সিরিজ ‘গার্লস’ এবং হার্ভে ওয়েনস্টেইনের প্রযোজনা সংস্থায় ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করেন।

এছাড়াও মালিয়া ডোনাল্ড গ্লোভারের অ্যামাজন প্রাইম সিরিজ ‘সোয়ার্ম’-এ রাইটার হিসেবেও কাজ করেছেন মালিয়া।

google-news-channel-newsasia24

Follow

ভিক্ষা করে জমি কিনে দোতালা বাড়ি, মোটা অঙ্কের টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট!

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ভিক্ষাবৃত্তি শুধু পেটের দায়ে নয়, কিছু মানুষ এটিকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন। তেমনি এক ভিক্ষুকের আয়ের কথা জানলে আপনার চোখ কপালে উঠবে! তিনি ভিক্ষার টাকায় জমি কিনে দোতলা বাড়ি তৈরি করেছেন। দামি মোটরসাইকেলও আছে তার। এছাড়াও দামি স্মার্টফোনও ব্যবহার করেন তিনি।

অন্যদিকে, মাস শেষে মোটা অঙ্কের টাকা ব্যাংকে ফিক্সড ডিপোজিট করেন। সম্পত্তির এই পরিসংখ্যান ভারতের এক ভিখারির। তার নাম ইন্দিরা বাই। তিনি বছরে ২০ লাখ টাকা উপার্জন করেন।

শুধু যে নিজে ভিক্ষাবৃত্তি করেন, বিষয়টা তা নয়। ভিক্ষায় নিয়োজিত করেছেন নিজের তিন সন্তানকেও। এদের মধ্যে তার আট বছরের মেয়েও আছে।

ভারতের ইন্দোর শহরের এই ভিখারি তিন সন্তানকে ‘জোর করে’ ভিক্ষা করানোর দায়ে সম্প্রতি পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন। এরপরেই তার সম্পত্তির হিসাব-নিকাশ সামনে আসতে শুরু করেছে।

স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, আটক করার সময় ইন্দিরার কাছে ছিল ১৯ হাজার ২০০ টাকা। ওই টাকা মাত্র ৭ দিনের উপার্জন বলে জানিয়েছেন তিনি। যা অনেকাংশে কর্পোরেট চাকরির বেতনের থেকেও বেশি। এছাড়াও ইন্দিরা ও তার পরিবারের রয়েছে জমি, বাড়ি, গাড়ি, স্মার্টফোন-সহ অন্যান্য ত্যাধুনিক বৈদ্যুতিন জিনিসপত্র।

আরও পড়ুন: 

ভারতের মধ্যপ্রদেশ সরকার শহরগুলোকে ভিক্ষুক মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়। সেই কাজ করতে গিয়েই চাঞ্চল্যকর এই তথ্য বেরিয়ে আসে। এমন গল্প শুধু ইন্দিরা বাইয়ের নয়, মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর শহরে ৭০০০-এর বেশি মানুষের পেশা ভিক্ষাবৃত্তি। যারা ইন্দোরের ৯৮.৭ শতাংশ মানুষের থেকে বেশি উপার্জন করেন।

ইন্দিরা বাইয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। আট বছরের মেয়েটিকে শিশুদের জন্য হোমে পাঠানো হয়েছে।

google-news-channel-newsasia24

আফগানিস্তানে ‘জীবন্ত বস্তুর’ ছবি তোলা নিষেধ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের কান্দাহারে যেকোনো ধরনের ‘জীবন্ত বস্তুর’ ছবি তোলা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

আজ রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে লেখা এক চিঠিতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। কান্দাহার প্রদেশটিকে বলা হয় তালেবানের জন্মস্থান।

আজ রবিবার প্রাদেশিক স্বরাষ্ট্র দপ্তর এক চিঠিতে বলেছে, আনুষ্ঠানিক-অনানুষ্ঠানিক সমাবেশগুলোতে যেন ‘জীবন্ত বস্তুর’ ছবি তোলা থেকে সবাই বিরত থাকে। কারণ এতে ‘উপকারের চেয়ে অপকারই বেশি’ হয়।

আফগানিস্তানে তালেবানের আগের শাসনামলে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত জীবন্ত বস্তুর ছবি তোলা নিষিদ্ধ ছিল। বছর দুয়েক আগে তারা দক্ষিণ এশীয় দেশটির ক্ষমতায় ফেরার পর থেকে স্থানীয় বেশ কিছু মিডিয়া মানুষ ও পশুপাখির ছবি ব্যবহার বন্ধ রেখেছে।

আরও পড়ুন:

এএফপি জানিয়েছে, কান্দাহারে জীবন্ত বস্তুর ছবি তোলা থেকে বিরত থাকার নির্দেশের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন প্রাদেশিক গভর্নরের একজন মুখপাত্র। তবে নিয়মটি কতটা কঠোর ও কীভাবে কার্যকর করা হবে তা স্পষ্ট নয়। এ বিষয়ে তালেবান প্রশাসনের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

google-news-channel-newsasia24

Follow

ভোটে কারচুপির দায় স্বীকার করলেন পাকিস্তানের কমিশনার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভোট কারচুপির সঙ্গে জড়িত থাকার স্বীকারোক্তি দিয়ে পদত্যাগ করেছেন পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডি ডিভিশনের কমিশনার লিয়াকত আলি চাতা। একই সঙ্গে তিনি নিজের ও প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্যান্য জড়িত কর্মকর্তার বিচার চেয়েছেন।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) পদত্যাগ করে রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে লিয়াকত আলি দাবি করেন, পিন্ডিতে ১৩ জন প্রার্থীকে জোর করে জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমরা ৫০ হাজার ভোটে পরাজিত প্রার্থীকে ভোট বেশি দেখিয়ে জয়ী করেছি।

আরও পড়ুন>>গোলাবারুদ সংকটে রণক্ষেত্র থেকে পিছু হটলো ইউক্রেন

লিয়াকত বলেন, আমি রাওয়ালপিন্ডি ডিভিশনে অবিচার করেছি। আমি আজ ফজরের নামাজের পর আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলাম। তবে পরে আমি চিন্তা করলাম, আমি কেন মহাপাপের মৃত্যুকে বরণ করে নেব? আমি সব কিছু মানুষের সামনে কেন প্রকাশ করে দেব না?

কমিশনার বলেন, রাওয়ালপিন্ডি ডিভিশনে আমি ভোট জালিয়াতির দায়দায়িত্ব মেনে নিচ্ছি। এবং আমার নিজেকে পুলিশে সোপর্দ করছি।

আরও পড়ুন>>কারাগারে রহস্যজনক মৃত্যু রাশিয়ার বিরোধী নেতা নাভালনির!

কমিশনার লিয়াকত বলেন, তিনি এই শহরে অনেক উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। তবে দেশকে পেছনের দিকে ঠেলে দিয়ে নিজের ভাবমূর্তিকে এভাবে কলঙ্কিত করায় তিনি অনুতপ্ত।

লিয়াকত আরও বলেন, এই কাজ করার পর আমি রাতে ঘুমাতে পারিনি। এখন আমি শান্তিপূর্ণভাবে মরতে চাই। আমি যা করেছি, সে জন্য আমার শাস্তি হোক। আমার সঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ইসিপির জড়িত অন্যান্য কর্মকর্তার শাস্তি হওয়া উচিত।

google-news-channel-newsasia24

Folllow