Deprecated: Function Automattic\Jetpack\Assets::add_async_script is deprecated since version 2.1.0 with no alternative available. in /home/newsasia24/public_html/wp-includes/functions.php on line 6031
শীর্ষ সংবাদ Archives - Page 41 of 47 - newsasia24.com
শিরোনাম

শীর্ষ সংবাদ

ইসরায়েল ও হামাসের যুদ্ধ: সূর্যের আলো ফোটার আগেই ৩ হাজার রোকেট ছোড়া হয়েছিল

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের যুদ্ধের মধ্যে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ২ হাজার ৭০০ জনেরও বেশি মানুষ।

এই যুদ্ধে নারী, শিশু, বেসামরিক লোকজন এবং বেশ কয়েকজন বিদেশি নাগরিক নিহত হয়েছেন।

আইডিএফ জানিয়েছে, এ পর্যন্ত সেখানে নিহতের সংখ্যা ১ হাজার ৩০০ জন ছাড়িয়ে গেছে।

এ সপ্তাহে উপত্যকায় নিহত হয়েছেন অন্তত ১ হাজার ৫৩৭ জন এবং আহত হয়েছেন আরও ৬ হাজার ৬১২ জন।

জেরুজালেমে ৩৬ জন নিহত হয়েছেন।

মার্কিন নাগরিক নিহত হয়েছেন ২৫ জন ।

গত ৮ অক্টোবর ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের গাজা ভূখণ্ডের নিয়ন্ত্রণকারী গোষ্ঠী হামাসের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়।

আরও পড়ুন: 

ইসরায়েলের বিভিন্ন স্থাপনা লক্ষ্য করে রকেট ছোড়ে হামাস।

তথ্য অনুযায়ী, ঐদিন সূর্যের আলো ফোটার আগেই ৩ হাজার রোকেট ছোড়া হয়েছিল।

গোয়েন্দা তথ্য না থাকায় প্রথমদিকে ইসরায়েল প্রস্তুত ছিল না।

তবে এরই মধ্যে ইসরালের সরকার বলেছেন, হামাসকে চিরতরে ধ্বংস করে দেয়া হবে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় গাজায় সতর্কতা জারি করা হয়।

united-nation-newsasia24

উত্তরে বসবাসকারী প্রত্যেকের আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দক্ষিণ গাজায় সরে যাওয়া উচিত।

তবে, জাতিসংঘ বলছে, চরম মানবিক পরিস্থিতি ছাড়া এত মানুষকে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়।

গাজার বাসিন্দাদেরও সতর্ক করা হয়েছে, তারা যেন কোন ভাবেই ইসরায়েলের সীমানার কাছে না যায়।

আইএসআইএসের সঙ্গে জরিত থাকার অভিযোগে আটক তিন ইঞ্জিনিয়ার

গাজায় তিন হাজার ৬০০ টির বেশি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: গাজাকে লক্ষ্য করে ছয় হাজার বোমা ছোড়া হয়েছে, আর বোমার ওজন প্রায় চার হাজার টন।

বৃহস্পতিবার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এ তথ্য জানিয়েছে।

gaja-war-newsasia34

তারা জানিয়েছেন, এ সপ্তাহে গাজায় তিন হাজার ৬০০ টির বেশি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করা হয়েছে। একইসঙ্গে যতদিন প্রয়োজন হবে ততদিন এ আক্রমণ চালিয়ে যাওয়া হবে।

আরও পড়ুন: 

ইসরায়েলি বাহিনীর এ বোমা হামলায় গাজার এক হাজার ৪১৭ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়াও ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, ইসরায়েলিদের বোমার আঘাতে প্রায় ছয় হাজার ২০০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছে।

Our Facebook: https://www.facebook.com/newsasia24bd

কিছু সুবিধাভোগী লোকের জন্য বাজারে অস্থিরতা: ডিএমপি কমিশনার

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. হাবিবুর রহমান বলেছেন, কিছু সুবিধাভোগী লোকের জন্য বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় কোনো পণ্যের বাজারে সংকট নেই। কিন্তু সমন্বয়ের অভাবের কারনে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) ডিএমপি সদরদপ্তরে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, বাজারে জিনিসপত্রের সংকট নেই অথচ দ্রব্যের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। ব্যবসায়ীরা আড়ত থেকে মালামাল কিনলে তাদের রশিদ দেওয়া হয় না। আবার ওই ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে খুচরা ব্যবসায়ীরা মালামাল কিনলে তাদেরও রশিদ দেওয়া হয় না।

আরও পড়ুন:

তিনি বলেন, এখন সড়ক যোগাযোগ অনেক ভালো হওযার কারণে প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চল থেকেও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ঢাকায় চলে আসে। সে ক্ষেত্রে জিনিসপত্রের দাম কম হাওয়ার কথা।

সবজি উৎপাদনে সারাবিশ্বে বাংলাদেশ তৃতীয়। আমাদের এমন থাকার কথা নয়।

চাঁদাবাজির প্রসঙ্গে তথ্য পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

ফিলিস্তিনে এক ঘণ্টায় ৫১ জন নিহত

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ফিলিস্তিনের গাজায় এক ঘণ্টায় ৫১ জন নিহত হয়েছে। ধ্বসে পড়ছে একের পর এক স্থাপনা। যেন মৃত্যুপুরীতে পরিনত হয়েছে গাজা।

ফিলিস্তিনি এবং ইসরায়েলিদের এই সংঘাত আজ ষষ্ঠ দিন। সংঘাত তীব্র থেকে আরও তীব্রতর হচ্ছে। ক্রমেই বাড়ছে ইসরায়েলিদের তীব্রতা।

war-filistin-israil-war-newsasia24

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ইসরায়েলি বিমান হামলার তীব্রতা আরও বেড়েছে। গত এক ঘন্টায় ৫১ জন নিহত হয়েছে বিমান হামলায় এরই সাথে আহত হয়েছেন আরও ২৮১ জন । আল জাজিরা সূত্রে বিষয়টি জানা গেছে।

হামলাগুলি সাবরা, আল জায়তুন, আল নাফাক এবং তাল আল হাওয়াতে আঘাত হানে। এছাড়াও গাজার খান ইউনিসও বিমান হামলায় আক্রান্ত হয়েছে।

আরও পড়ুন:

জানা গেছে, হামলায় আহতদের অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান চলছে।

গত পাঁচ দিনে দুই পক্ষের হামলা-পাল্টা হামলায় ২২০০ এর বেশি মানুষ নিহত হয়েছে ।

২২ দিনের জন্য ইলিশ ধরা বন্ধ

ভোলা প্রতিনিধি: ২২ দিনের জন্য ইলিশ ধরা বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। ইলিশের প্রজনন মৌসুম রক্ষার্থে এ জারি করা হয়েছে।

বুধবার (১১ অক্টোবর) মধ্যরাত থেকে আগামী ২ নভেম্বর অর্থাৎ ২২ দিন পর্যন্ত এ জারি করা হয়েছে। এসময় মাছ ধরা, সংরক্ষণ, পরিবহন, ও বিপণন সম্পূর্নভাবে নিষিদ্ধ থাকবে।

তবে এ নিষেধাজ্ঞা মেনেছেন জেলেরা। তবে এতে চিন্তার ছাপও পড়েছে তাদের। কিভাবে দিন কাটবে? তাই এই সময়ে চাল বিতনের জন্য অনুরোধ করেন জেলেরা।

ভোলা নৌ পুলিশের ইনচার্জ মো. আখতার হোসেন বলেন, নিয়মিত নদীতে অভিযান চালানো হবে যাতে কেও মাছ ধরতে না পারে। প্রতিটি ঘাটে সচেতনমূলক সভা এবং লিফলেট বিতরন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:

 

সম্পর্ক গভীর করে বাসায় ডেকে টাকা আদায়, আটক ৪

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ওয়াসফিয়া। তৈরি করতেন সম্পর্ক। তারপর ফাদে ফেলে সবকিছু হাতিয়ে নিতেন তিনি। বাসায় ডেকে আপত্তিকর ছবিতুলে ব্ল্যাকমেইল করায় পারদর্শী।

তার আছে একটি চক্র। তাদের মধ্যে ৩ জন নারী ও ১ জন পুরুষ। অবশেষে পুলিশের কাছে আটক হোন তারা।

নারীদের মধ্যে ছিলেন, খাদিজা (২৭), মুনমুন (৩০) ও ওয়াসফিয়া খানম (২৬) এবং পুরুষ ব্যাক্তিটি হলেন হাদিউল ইসলাম বাবু (৩৪),

বুধবার (১১ অক্টোবর) মিরপুর মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসীন এ তথ্য নিশ্চিত করেন ।

তিনি জানান, গতকাল মঙ্গলবার মিরপুর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি আরও জানান, তাদের মধ্যে বাবু ব্যবসায়ী, খাদিজা ও মুনমুন গৃহিণী এবং ওয়াসফিয়া একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ শিক্ষার্থী।

এ চক্রের মাস্টারমাইন্ড ওয়াসফিয়া । তিনিই মূলত পরিকল্পনা সাজান। প্রথমে একজনকে টার্গেট করা হয়। টার্গেট করে তার সাথে তৈরি হয় বন্ধুত্ব।

আরও পড়ুন:

অফলাইনে তাদের যেকোনো একজন মেয়ে আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

এরপর সেই নম্বরে নিয়মিত যোগাযোগ করে তৈরি করা হয়।প্রেমের সম্পর্ক। সম্পর্ক গভীর হলে টার্গেটকে বাসায় ডাকা হয়। বাসায় আসলেই চক্রের বাকি সদস্যরা মারধর করে টাকা ও মোবাইল নিয়ে ফেলে।

এ সময় মেয়ে সদস্যরা প্রথমেই ওই ছেলের সঙ্গে আপত্তিকর ছবি তুলে। তারপর শুরু হয় ব্লাকমেইল। সেই ছবি স্ত্রী কিংবা পরিবারের কাছে পাঠিয়ে বড় অংকের টাকা দাবি করত তারা।

টাকা না দিলে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর হুমকি দেয়। উপায়ন্তর না দেখে এবং সামাজিক মর্যাদাহানির ভয়ে তারাও টাকা দিত তারা।

এইভাবে এক এনজিও কর্মকর্তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন খাদিজা। বাবার অসুস্থতার কথা বলে খাদিজা ওই ব্যক্তির কাছ থেকে নেন ২০০ টাকা।

এ টাকা নেওয়ার মাধ্যমেই পরিচিত হন তিনি। এরপর বিভিন্ন সময় ফোন দিয়ে সম্পর্ক আরও গভীর করতে থাকেন। এক পর্যায়ে মঙ্গলবার তাকে বাসায় ডাকেন খাদিজা। বাসায় আগে থেকেই ছিলেন বাবু, মুনমুন ও ওয়াসফিয়া।

তিনি বাসায় ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে তাকে বেঁধে মারধর করে মোবাইল ও ৫ হাজার টাকা নিয়ে নেয় তারা। এরপর তার স্ত্রীকে ফোন করে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন ঐ চক্র।

শেষে ১০ হাজার ২০০ টাকায় রফা করেন। টাকা নিয়ে রাতে তাকে ছেড়ে দিতে আসলে তিনি চিৎকার শুরু করেন। এ সময় আশপাশের লোক এসে তাদের আটক করেন।

পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে পুলিশ এসে তাদের আটক করে এবং মোবাইল ও টাকা উদ্ধার করে।

আমাদের লক্ষ্য ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের সঙ্গে বাংলাদেশকে সংযুক্ত করা: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: বরিশাল হয়ে ঝালকাঠি, পটুয়াখালী হয়ে একেবারে পায়রা পর্যন্ত রেলসংযোগ নেওয়া পরিকল্পনা আছে, ফিজিবিলিটি স্টাডি চলছে। তবে এটা কঠিন কাজ, আমাদের মাটির সক্ষমতা একটু কম তবুও আমাদের প্রচেষ্টা আছে।

আমাদের লক্ষ্য ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ের সঙ্গে বাংলাদেশকে সংযুক্ত করা। সেভাবে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

আজ মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) পদ্মা সেতুর রেলসংযোগ প্রকল্পের ঢাকা-ভাঙ্গা অংশের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে মাওয়া প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ট্রেনে চড়ে ভাঙ্গা স্টেশনে উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তিনি বলেন, বাঙালি জাতিকে আমি আহ্বান করবো যে, বাঙালি জাতির ভাগ্য নিয়ে কেউ যেন ছিনিমিনি খেলতে না পারে।

আমরা রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা এনেছি, বাংলাদেশ জাতির পিতার আদর্শ নিয়েই এগিয়ে যাবে, মাথা তুলে দাঁড়াবে।

২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ, স্মার্ট জনগোষ্ঠী, স্মার্ট ইকোনমি, স্মার্ট গভর্নমেন্ট, স্মার্ট সোসাইটি আমরা গড়ে তুলবো এটাই আমাদের লক্ষ্য।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রেলের সার্বিক উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। এ পর্যন্ত ১০০ লোকোমোটিভ, ৬৯৮ যাত্রীবাহী ক্যারেজ, ৫১৬টি মালবাহী ওয়াগন, ৫০টি লাগেজ ভ্যানসহ রেলওয়েতে সংযুক্ত হয়েছে।

আর বিভিন্ন রুটে ১৪৩ নতুন ট্রেন চালু হয়েছে, ১৩৪টি স্টেশনে সিগন্যালিং ব্যবস্থা উন্নত এবং আধুনিক করা হয়েছে। আমরা আমাদের অভ্যন্তরীণ ও আঞ্চলিক রেল যোগাযোগ বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়েছি।

আমরা আশা করি বাংলাদেশে রেল যোগাযোগ ব্যাপকভাবে বাড়বে। মানুষের জীবন মান আরও উন্নত হবে।

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত ইয়াও ওয়েন, স্থানীয় সংসদ সদস্য সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, সেনাপ্রধান জেনারেল শেখ মো. শফিউদ্দিন আহমেদ এবং সচিব হুমায়ুন কবির।

প্রশান্ত কুমার হালদারে ২২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: প্রশান্ত কুমার হালদারে বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের রায় ঘোষনা করা হয়েছে। আজ রোববার (৮ অক্টোবর) তাকে ২২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। তিনি এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অর্থপাচারের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় তাকে এ শাস্তি দেয়া হয়।

২০০৪ এর ২৭(১) ধারায় ১০ বছর এবং অর্থপাচারের দায়ে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন এবং ২০১২এর ৪(২) ও ৪(৩) ধারায় ১২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। তিন ধারার সাজা একটার পর একটা চলবে। ফলে পিকে হালদারকে ২২ বছর কারাভোগ করতে হবে।

এর আগে গত বুধবার (৪ অক্টোবর) একই আদালত উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য আজ দিন ধার্য করেন।

আরও পড়ুন:

শ্রেষ্ঠ গ্রাম পুলিশ নির্বাচিত আঃ রাজ্জাক

নাজমুল হাসানঃ পুলিশ প্রশাসনের কাজে সার্বক্ষনিক সহায়তার জন্য শ্রেষ্ঠ গ্রাম পুলিশ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ আঃ রাজ্জাক।

আজ শনিবার (০৭ অক্টোম্বর) সকাল ১০ টায় খুলনা রেঞ্জ কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে শ্রেষ্ঠ গ্রাম পুলিশের সম্মাননা স্মারক ও আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়।

জানা গেছে, আঃ রাজ্জাক সার্বক্ষনিক সর্তক থেকে ডিউটি করা সহ ইউনিয়নের মাদকদ্রব্য, বাল্য বিয়ে নির্মুলে ও গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল মামলার বিভিন্ন আসামীদের ধরতে পুলিশ প্রশাসনকে সর্বাত্বক সহযোগিতা করায় রেঞ্জ ডিআইজি ও জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় আঃ রাজ্জাককে শ্রেষ্ঠ গ্রাম পুলিশ হিসেবে এ সম্মাননা স্মারক দেয়া হয়েছে।

পুলিশের এমন ব্যতিক্রমি পদক্ষেপ দেখে সকল উপজেলার ইউনিয়ন গ্রাম পুলিশদের মধ্যে দেখা দিয়েছে প্রাণচাঞ্চল্য।

খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো: মোস্তফা হাবিবুল্লাহ জানান, আঃ রাজ্জাক ইউনিয়নের পাশাপাশি সর্বাত্বক পুলিশের কাজে সহায়তা করে আসছেন। সেজন্য উপজেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠ গ্রাম পুলিশ হিসেবে নির্বাচিত করে জেলা এসপি স্যারের নির্দেশনায় তাকে রেঞ্জ সেরা সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়েছে।

এতে করে তাদের মধ্যে আরো উৎসাহ উদ্দীপনা কাজ করবে বলে তিনি জানান।

আরও পড়ুন:

 

শুধু জনসংখ্যা নয়, বয়সের শ্রেণীবিভাগ ও তথ্য উপাত্ত জানা জরুরি

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: শুধু মোট জনসংখ্যা জানাই যথেষ্ট নয়, বিভিন্ন বয়সের শ্রেণীবিভাগ ও তথ্য উপাত্ত জানা জরুরি বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন যেকোনো নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে কোন ধরনের মানুষের জন্য সেই নীতি নেওয়া হচ্ছে, কোন বয়সের মানুষের জন্য এবং কত সংখ্যক মানুষের জন্য নেওয়া হচ্ছে সেই তথ্যও অতি গুরুত্বপূর্ণ।

আজ শুক্রবার (৬ অক্টোবর) ঢাকায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস-২০২৩ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন জরুরি, কারণ বয়স্ক মানুষের চাহিদা আর যুবকদের চাহিদা এক নয়।

আবার যুবকদের চাহিদা আর শিশু-কিশোরদের চাহিদা এক নয়। নানা বয়স, ধর্ম-বর্ণের মানুষের চাহিদা সনাক্তকরণ এবং সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন তথ্যই সরকারের প্রয়োজন হয়।

আরও পড়ুন: 

তিনি জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে দ্রুত এই সমস্যাগুলো সমাধান করার আশ্বাস দেন এবং জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিবসহ অন্যান্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদেরকে কাজ করার কথা বলেন।।

মন্ত্রী বলেন, হয়তো জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনে প্রত্যাশিত সেবায় ত্রুটি বিচ্যুতি রয়েছে। সেই সমস্যাগুলো সমাধান করে আমাদেরকে নাগরিক সেবায় ভোগান্তি দূর করা হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইবরাহিম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব মো. শামসুল আরেফিন, মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের সচিব মো. মাহমুদুল হোসাইন খান, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. রাশেদুল হাসান, ইউনিসেফ এর চিফ অফ চাইল্ড প্রটেকশন মিস নাটালি ম্যাককলি।