Deprecated: Function Automattic\Jetpack\Assets::add_async_script is deprecated since version 2.1.0 with no alternative available. in /home/newsasia24/public_html/wp-includes/functions.php on line 6031
শিরোনাম Archives - Page 55 of 61 - newsasia24.com
শিরোনাম

শিরোনাম

পলাতক আসামি রোকনুজ্জামান গ্রেপ্তার

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক:  পুলিশের  এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) গ্রেপ্তার করেছেন মুক্তিযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি খান রোকনুজ্জামানকে।

র‌্যাব-২ এর একটি দল শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে ঢাকার সাভার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে ।

রোববার (১ অক্টোবর) দুপুরে র‌্যাব-২ এর সিনিয়র এএসপি শিহাব করিম জানান, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর সহযোগী হিসেবে যুদ্ধাপরাধী খান রোকনুজ্জামান সাতক্ষীরা এলাকায় মুক্তিকামী মানুষের ওপর নির্যাতন, অপহরণ, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগ, ধর্ষণ, হত্যা-গণহত্যাসহ বিভিন্ন মানবতাবিরোধী কাজ করে।

আরও পড়ুন:হঠাৎ ভিসা স্যাংশন দিতে চাচ্ছে কী কারণে?

১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীদের সঙ্গে নিয়ে তিনি সাতক্ষীরা জেলায় পাঁচ ব্যক্তিকে গলা কেটে ও একজনকে বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা, দুই জনকে ধর্ষণ ও ১৪ জনকে আটক করে নির্যাতনের মতো অপরাধে জড়িত ছিলেন।

এ ঘটনায় ২০১৫ সালে সাতক্ষীরায় রোকনুজ্জামানের বিরুদ্ধে অবৈধ আটক, নির্যাতন, ধর্ষণ, হত্যা-গণহত্যাসহ বিভিন্ন মানবতাবিরোধী কাজে জড়িত থাকার অপরাধে একটি মামলা হয়।

পরে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর আদেশ দেন। ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার কার্যক্রম ২০১৫ সালের ৭ আগস্ট থেকে শুরু করে ২০১৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলে।

২০১৭ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খান রোকনুজ্জামানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা প্রতিবেদন দাখিল করে।

দীর্ঘ বিচারিক কার্যক্রম শেষে আসামির বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০২২ সালের মার্চ মাসে রোকনুজ্জামানকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন ট্রাইব্যুনাল।

আরও পড়ুন:ডাম্প ট্রাক কিনবে ডিএসসিসি

৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম কই?

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিকে জিজ্ঞেস করতে চাই- ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম কই? আলটিমেটাম ভুয়া, এক দফা ভুয়া, বিএনপি হচ্ছে ভুয়া, ৩২ দল ভুয়া, আন্দোলন ভুয়া, ক্ষমতা দখল ভুয়া, ভুয়ার দল।

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার আবেদনের বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তারা বলে আর কোন কর্মসূচির অনুমতি নেবে না।

অবৈধ সরকার থেকে অনুমতি নেবে না। তাহলে অবৈধ সরকারের কাছে খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন কেন করে? এ সরকার যদি অবৈধ হয়, এখানে কেন আবেদন?

বাংলাদেশ কৃষক লীগ আয়োজিত কৃষক মহাসমাবেশেতিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিকে জিজ্ঞেস করতে চাই- ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম কই? আলটিমেটাম ভুয়া, এক দফা ভুয়া, বিএনপি হচ্ছে ভুয়া, ৩২ দল ভুয়া, আন্দোলন ভুয়া, ক্ষমতা দখল ভুয়া, ভুয়ার দল।

আরও পড়ুন, ইসলামিদলগুলোর অংশগ্রহণে নির্বাচন কামিয়াবি ও সফল

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বিএনপি নেতারা শেখ হাসিনাকে কবরস্থানে পাঠাতে চায় ।ওবায়দুল কাদের বলেন, সেদিন আর বেশি দূরে নয়, বিএনপির রাজনীতিই কবরস্থানে যাবে। কবরস্থানে যাওয়ার সময় এসেছে।

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন,এক সময় আমরা খাদ্যের ঝুলি নিয়ে সারা পৃথিবীতে ঘুরে বেড়াতাম। আজ সেই বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমাজের অন্যান্য পেশাজীবীদের মতো কৃষকরাও আজকে সমানভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। তারা চাহিদা অনুযায়ী বীজ-সারসহ সব উপকরণ পাচ্ছে। একই সঙ্গে কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্যও পাচ্ছে।

আজকে সারা দেশে কৃষকরা যখন সুখে আছে, তখন বিএনপির মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তারা মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে। বিশৃঙ্খলা ও নৈরাজ্যের মাধ্যমে দেশকে অরাজকতার দিকে ঠেলে দিতে চায়।

কৃষক লীগকে এ ব্যাপারে পাহারা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, কৃষক ভাইয়েরা যদি পাহারা দেয়, তাদের সঙ্গে যদি অন্যান্য পেশাজীবীরা থাকে তাহলে বিএনপি আর অরাজকতা করার সাহস পাবে না।

আরেক সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন। আজ বাংলাদেশ কৃষিতে, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। চালের দাম এই মুহূর্তে নিম্মমুখী।

দুই-তিন বছরের চেয়ে অনেক কম।।গত বছর পেঁয়াজ ফেলে দিতে হয়েছে। আলু বিক্রি করতে পারে নাই। তাই এবার কৃষকরা আলুর চাষ কম করেছে এবং পেঁয়াজ এর দাম বাড়িয়েছে।

আমি জানি রিকশা-ভ্যান চালক, নিম্ন আয়ের মানুষদের কষ্ট হচ্ছে। আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি এগুলোর দাম কমানোর জন্য।

কৃষিবিদ সমীর চন্দ্রের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এসএম কামাল হোসেন, আফজাল হোসেন, মির্জা আজম, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নির্মল চ্যাটার্জী, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুল আমিন রুহুল, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ প্রমুখ।

সমাবেশ সঞ্চালনা করেন কৃষক লীগ সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতী এবং আরও অনেকে।

আরও পড়ুন: সরকার পদত্যাগ না করলে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে না বাম জোট

এবার সোনার দাম কমলো

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: এম এ হান্নান আজাদ জানান, ২২ ক্যারটের প্রতি ভরি সোনার দাম এক হাজার ৭৫০ টাকা কমানো হয়েছে। এর ফলে এ ক্যাটাগরির সোনার নতুন মূল্য হবে ৯৮ হাজার ২১১ টাকা (প্রতি ভরি)। এতদিন যা ছিল ৯৯ হাজার ৯৬০ টাকা।

আজ শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বাজুসের মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণ স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এম এ হান্নান আজাদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, স্থানীয় বাজারে সোনার দাম কমেছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন সোনার নতুন দাম নির্ধারণ করেছে। রোববার ( ১ অক্টোবর) থেকে এটি কার্যকর করা হবে।অনেক দিন পর লাখের নিচে নেমেছে সোনার দাম।

নতুন মূল্য অনুযায়ী সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনার দাম হবে ৯৮ হাজার ২১১ টাকা। ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ৯৩ হাজার ৭৭৯ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৮০ হাজার ৩৬৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনার দাম ৬৬ হাজার ৯৫১ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: হঠাৎ ভিসা স্যাংশন দিতে চাচ্ছে কী কারণে?

সোনার দাম বাড়ানো হ‌লেও অপরিবর্তিত রয়েছে রুপার দাম। ক্যাটাগরি অনুযায়ী বর্তমানে ২২ ক্যারেটের রুপার দাম (ভ‌রি) ১ হাজার ৭১৫ টাকা, ২১ ক্যারেটের দাম ১ হাজার ৬৩৩ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম ১৪০০ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রুপার দাম ১০৫০ টাকা।

আজকে পর্যন্ত ওই দাম অনুযায়ী ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনা বিক্রি হয় ৯৯ হাজার ৯৬০ টাকায়। ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ৯৫ হাজার ৪১২ টাকা, ১৮ ক্যারেটের সোনা ৮১ হাজার ৭৬৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির সোনা ৬৮ হাজার ১১৮ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

ডাম্প ট্রাক কিনবে ডিএসসিসি

১০ থেকে ১৫ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে ডাল

 

হঠাৎ ভিসা স্যাংশন দিতে চাচ্ছে কী কারণে?

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হঠাৎ ভিসা স্যাংশন দিতে চাচ্ছে কী কারণে? আর মানবাধিকারের কথা যদি বলে বা ভোটের অধিকারের কথা যদি বলে…আমরা, আওয়ামী লীগ; আমরাইতো এদেশের মানুষের ভোটের অধিকার নিয়ে সংগ্রাম করেছি। আমাদের কত মানুষ রক্ত দিয়েছে, এই ভোটের অধিকার আদায় করার জন্য।’

ভয়েস অব আমেরিকার সাংবাদিক শতরূপা বড়ুয়া প্রধানমন্ত্রীর কাছে যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

স্থানীয় সময় বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ভয়েস অব আমেরিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন। ওই সাক্ষাৎকারের ভিডিও ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ ছবিসহ ভোটার তালিকা, স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স, মানুষকে ভোটের অধিকার সম্পর্কে সচেতন করা…।

আমার ভোট আমি দেবো, যাকে খুশি তাকে দিবো- এই স্লোগানও আমার দেওয়া। আমি এভাবে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছি।

কারণ আমাদের দেশে বেশিরভাগ সময় স্বৈরশাসকরা দেশ শাসন করেছে। তাদের সময় সাধারণ মানুষের ভোট দিতে হয়নি। তারা ভোটের বাক্স ভরে নিয়ে ফল ঘোষণা করে দিয়েছেন।

এরই প্রতিবাদে আমরা আন্দোলন, সংগ্রাম করে আজ আমরা নির্বাচন সুষ্ঠু পরিবেশে নিয়ে আসতে পেরেছি।

এখন মানুষ তার ভোটের অধিকার সম্পর্কে অনেক সচেতন। সেটা আমরা করেছি। কিন্তু সেক্ষেত্রে হঠাৎ করে এভাবে স্যাংশন দেওয়ার যৌক্তিকতা আছে বলে আমি মনে করি না।’

আরও পড়ুন: ডাম্প ট্রাক কিনবে ডিএসসিসি

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের আইন অনুযায়ী আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী কোনো সংস্থা, সেটা র‌্যাব হোক, পুলিশ হোক বা অন্য যেকোনো সংস্থা হোক; তারা অন্যায় করলে আমাদের দেশে সেটার বিচার হয়।এই বিচারে কেউ রেহাই পায় না।

অনেক সময় তারা কোনো কাজ অতিরিক্ত করে, করতে পারে। কিন্তু করলে সেটা আমাদের দেশের আইনেই সেটার বিচার হচ্ছে। যেখানে এমন বিচার হচ্ছে, এমন ব্যবস্থা আছে; সেখানে এই স্যাংশনে কী কারণে?’

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা শানিত ও সমৃদ্ধ হয়েছে : রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন

দেশের ৮৫৬ টি পোশাক কারখানা ঝুঁকিপূর্ণ: সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ

 

Our Facebook: www.facebook.com/newsasia24bd

Our YouTube: www.youtube.com/newsasia24bd

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত তিশা

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশা। তবে বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে যান তিনি।

জানা যায়, গতকাল রাজশাহীতে স্যুটিং শেষ করে ঢাকায় ফিরছিলেন তিনি। ঢাকায় যাওয়ার পথে একটি ড্রামট্রাক তার গাড়িটিকে ধাক্কা দেয়।

আজ শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ির ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন তিশা। তবে, কোথায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে তা সে বিষয়ে কিছু জানাননি।

পোস্টে তিনি বলেন, গত রাতটি আমি ভুলতে পারব না। আমি সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিলাম। একটি ড্রাম ট্রাক আমার গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে দিয়েছে। আমার এই গাড়ি খুব প্রিয়।

আরও পড়ুন: আমার বয়স অনেক নিচে: হাবু ভাই

কারণ কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে এটি কিনেছি। সুতরাং এই ক্ষতি মেনে নেওয়া আমার জন্য সহজ নয়। তারপরও আলহামদুলিল্লাহ!

আমি শরীরে কিছু আঘাত পেয়েছি। কিন্তু এখন ঠিক আছি। এজন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। যারা আমাকে ভালোবাসেন, আমার জন্য দোয়া করেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ।

এবার সম্পর্ক ভাঙলো মালাইকার!

ডাম্প ট্রাক কিনবে ডিএসসিসি

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাজের জন্য ১০ টন ওজন বহন ক্ষমতাসম্পন্ন ডাম্প ট্রাক কিনবে বলে জানিয়েছে ডিএসসিসি সচিব আকরামুজ্জামান। এতে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে সংস্থাটি।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) কর্পোরেশন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আকরামুজ্জামান জানান, কমিটি প্রতিষ্ঠানের টেকনিক্যল স্পেসিফিকেশনসহ অন্যান্য বিষয়গুলো যাচাই-বাছাই করবে।

তিনি আরও জানান, টেকনিক্যালি রেসপনসিভ কি না সে বিষয়ে মতামত পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রধান ভাণ্ডার ও ক্রয় কর্মকর্তা বরাবর প্রতিবেদন জমা দেবে।

আরও পড়ুন: মুক্তিযুদ্ধের চেতনা শানিত ও সমৃদ্ধ হয়েছে : রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন

ডিএসসিসি সূত্রে জানা গেছে, নির্বাহী প্রকৌশলী মাহাবুব আলমকে এই কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে ।

কমিটির সদস্য সচিব হয়েছেন ডিএসসিসির ভাণ্ডার ও ক্রয় কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায় এবং সদস্য হয়েছেন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী মো. নুরুজ্জামান।

দেশের ৮৫৬ টি পোশাক কারখানা ঝুঁকিপূর্ণ: সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ

পাকিস্তানে ভয়াবহ বোমা হামলায় নিহত ৪

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: পাকিস্তানে ভয়াবহ বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৪ জন নিহত হয়েছেন।

তবে আশঙ্কা করা হচ্ছে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তান পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে।

2pakistan-boma-hamla-newsasia24জানা গেছে, আজ শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) পেশোয়ারে হাঙ্গু নামের একটি মসজিদে জুম্মার নামাজের সময় দুজন ব্যক্তি এ বোমা হামলা চালান। এতে মসজিদটির ছাদ ধসে পড়েছে এবং অনেক মানুষ আটকে আছেন।

এ হামলায় এক পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ৪ জন নিহত হয়েছেন।

আরও পড়ুন: ৩০০টি যুদ্ধবিমান কেনা হবে ভারতের

পাকিস্তানের পুলিশ কর্মকর্তা নিসার আহমেদ জানান, হামলায় মসজিদের ছাদ ধসে পড়ার পর ৩০-৪০ জন আটকে যান এবং তাদের উদ্ধারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, এ বোমা হামলায় দুইজন জড়িত ছিলেন। তাদের মধ্যে একজন পুলিশ স্টেশনের সামনে বোমার বিস্ফোরণ ঘটান এবং অপরজন মসজিদের ভেতর গিয়ে আত্নঘাতী বোমা হামলা করেন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ হামলার পর পুরো পাকিস্তানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে।

মার্কিন সামরিক বিমান বিধ্বস্ত; আহত-২০

চাঁদকে ‘হিন্দু রাষ্ট্র’ ঘোষণার দাবি

 

Our Facebook: http://www.facebook.com/newsasia24bd

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা শানিত ও সমৃদ্ধ হয়েছে : রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: বিগত ১৫ বছরে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি সরকারে থাকায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা শানিত ও সমৃদ্ধ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন।

শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সেক্টরস কমান্ডার ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ৭১’র ৬ষ্ঠ জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে এ আহ্বান জানান তিনি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী কোনো শক্তি যেন রাষ্ট্রক্ষমতায় আসতে না পারে সেদিকে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

তিনি বলেন, বাঙালির স্বাধীনতার স্বপ্ন অনেকেই দেখেছেন। কিন্তু জাতীয়তাবাদী চেতনার ধারাবাহিকতা আর আজীবন সংগ্রাম করে সেই স্বপ্নের সঠিক বাস্তবায়ন করেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বীরের দেশ বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে মর্যাদার আসনে আসীন। যতদিন দেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা অক্ষুণ্ন থাকবে, দেশ এগিয়ে যাবে।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত‍্যা সম্পর্কে রাষ্ট্রপতি বলেন, ইতিহাসের জঘন‍্যতম এ গণহত্যায় শহীদ হন ছাত্র, শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী, বিভিন্ন বাহিনী বিশেষ করে পুলিশ ও তৎকালীন ইপিআর সদস্যসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার অগণিত মানুষ।

একাত্তরের ১৩ জুন বিশ্ববরেণ্য সাংবাদিক অ্যান্থনি মাসকারেনহাসের লেখা যুক্তরাজ্যের ‘The Sunday Times’ পত্রিকার প্রথম পাতায় ‘GENOCIDE’ শিরোনামে প্রকাশিত নিবন্ধে এ গণহত্যার বিস্তারিত বিবরণ পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন: দেশের ৮৫৬ টি পোশাক কারখানা ঝুঁকিপূর্ণ: সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ

রাষ্ট্রপতি গণহত‍্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে ফোরামের সদস্যসহ সবাইকে নিরলস কাজ করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে ফোরামের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের আরও ধৈর্যধারণ করা উচিত: আইনমন্ত্রী

বাংলাদেশ চাইবে কিছু পাবে না, এমন নয়: প্রধানমন্ত্রী

জাপানের কাছে হেরে গেল আর্জেন্টিনা

নিউজ এশিয়া২৪ স্পোর্টস ডেস্ক: বড় ব্যবধানে জাপানের কাছে হেরে গেল আর্জেন্টিনা। আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ছিল সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জাপান। ৮-০ গোলের বড় ব্যবধানে হেরে গেছে আর্জেন্টিনা।

আজ শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মিকুনি ওয়ার্ল্ড স্টেডিয়ামে শুরু হয় খেলাটি। শুরু থেকেই আক্রমণের মুখে আর্জেন্টিনারা মাত্র দুই মিনিটেই প্রথম গোল খায় ।

পুরো ম্যাচে আর্জেন্টিনার গোলমুখে দলটি ২৪টি শট নেয়, যার ১৪টি-ই ছিল অন-টার্গেট। বিপরীতে আর্জেন্টিনা সাকুল্যে শট নিয়েছে দুটি, যার একটিই কেবল লক্ষ্যে রাখতে পেরেছে।

জাপানি প্লে-মেকার ইউই হাসেগাওয়া এবং কিকো সেইকি দুটি করে গোল করেছেন।

সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড আসরেও কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছে মেয়েদের বিশ্বকাপে একবার শিরোপাধারী দলটি। স্বাভাবিকভাবে আগে থেকেই তাদের চেয়ে পিছিয়ে ছিল বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত কোনো জয়ের দেখা না পাওয়া আর্জেন্টাইন মেয়েরা।

নিজেদের অর্ধে অনেক্ষণ বল নিয়ে বিভ্রান্তিতে ছিল আর্জেন্টিনা। সেই সুযোগেই ম্যাচের মাত্র দ্বিতীয় মিনিটেই মিনা তানাকা গোল করে স্বাগতিকদের লিড এনে দেন।

এর ৮ মিনিট পর পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন হাসেগাওয়া। ম্যাচের ২৫ তম মিনিটে তাকাহাশি এবং ৩৯ মিনিটে হাসেগাওয়ার দ্বিতীয় গোলে জাপানকে এগিয়ে দেন ৪-০ ব্যবধানে।

আরও পড়ুন:  ইউনাইটেডের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় সিটির

একই ধারা বজায় থাকে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও। বিরতির পর বদলি হিসেবে নামা সেইকি ৬১ মিনিটে নাম তোলেন স্কোরশিটে। এর মিনিট পাঁচেক বাদে হিনা সুগিতাও গোল পান।

পেনাল্টি থেকে গোলটি আসে। ৯২ মিনিটে দলের পক্ষে অষ্টম ও নিজের দ্বিতীয় গোল করেন সেইকি। এতে ৮-০ ব্যবধানের বিধ্বস্ত এক স্কোর নিয়ে আর্জেন্টিনা মাঠ ছাড়ে।

সাকিব আল হাসানের ভূঁয়সী প্রশংসা করেছেন আকাশ চোপড়া

ইলিশ কেনা-বেচা নিষিদ্ধ

নিউজ এশিয়া২৪ ডেস্ক: আগামী ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশ আহরণ, পরিবহন, ক্রয়-বিক্রয়, মজুত ও বিনিময় নিষিদ্ধ করা হয়েছে। প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশের নিরাপদ প্রজননের লক্ষ্যে এ ঘোষনা দেয়া হয়।

আজ বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত সপ্তাহের বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে মৎস্য অধিদপ্তরে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন সংক্রান্ত জাতীয় টাস্কফোর্স কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ আহরণ বন্ধের সময় নির্ধারণ এবং মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান ২০২৩ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশের নিরাপদ প্রজননের লক্ষ্যে আগামী ১২ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর (২৭ আশ্বিন থেকে ১৭ কার্তিক ১৪৩০) পর্যন্ত মোট ২২ দিন সারাদেশে ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ থাকবে। একই সঙ্গে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান বাস্তবায়ন করা হবে।

এ সময় দেশব্যাপী ইলিশ পরিবহণ, ক্রয়-বিক্রয়, মজুত ও বিনিময় নিষিদ্ধ থাকবে। এ সময় জেলেদের সরকার ভিজিএফ খাদ্য সহায়তা দেবে।

মন্ত্রী বলেন, ইলিশ আমাদের জাতীয় সম্পদই শুধু নয়, এটি জিআই সনদপ্রাপ্ত একটি সম্পদ যা বিশ্ব পরিমণ্ডলে আমাদের আলাদা পরিচয় বহন করে। অতীতের সকল রেকর্ড অতিক্রম করে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ ক্ষেত্রে ইলিশ উৎপাদনের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সংশ্লিষ্ট সবার অবদান রয়েছে।

ইলিশ সংরক্ষণে মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা, স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা, মৎস্যজীবী ও মৎস্যজীবীদের বিভিন্ন সংগঠন বিভিন্ন পর্যায়ে দায়িত্ব পালনের কারণে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পেলে মৎস্যজীবীরাই সে ইলিশ আহরণ করবে। সরকার শুধু ইলিশ উৎপাদনের পরিসর বৃদ্ধির জন্য কাজ করছে।

জাতীয় সম্পদ ইলিশ যাতে কোনভাবে বিপন্ন না হয় সেক্ষেত্রে কাজ করতে হবে। ইলিশ সারাদেশের সম্পদ। এজন্য এ মাছ রক্ষায় সবাই মিলে আন্তরিকভাবে ভূমিকা রাখতে হবে।

জেলেদের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিএফ দ্রুততার সাথে বিতরণের জন্য জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দেন তিনি। পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করে ইলিশ রক্ষায় জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়ারও আহ্বান জানান তিনি।

মন্ত্রী আরও বলেন, দরিদ্র-অসহায় মৎস্যজীবীদের ব্যবহার করে এক শ্রেণির মুনাফা লোভী দুর্বৃত্ত। তারা মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধকালে নদীতে-সমুদ্রে মাছ ধরতে জেলেদের নামায়। এক্ষেত্রে কোনো ছাড় নয়।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এসব দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।

আরও পড়ুন: ধর্ষক পীর কারাগারে

তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে। দেশের সম্পদ রক্ষায় রাষ্ট্র চেষ্টা করছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চেষ্টা করছেন। এর ব্যত্যয় ঘটালে, যতই প্রভাবশালী হোক ব্যবস্থা নিতে হবে। ইলিশ সম্পৃক্ত এলাকায় এ সময় প্রয়োজনে বরফ কল বন্ধ করে দিতে হবে।

উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নাহিদ রশীদ, অতিরিক্ত সচিব নৃপেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ, এ টি এম মোস্তফা কামাল, মো. আব্দুল কাইয়ূম ও মো. তোফাজ্জেল হোসেন, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খ. মাহবুবুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান সাঈদ মাহমুদ বেলাল হায়দর, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ ।

বিআরটিসি যাত্রীদের জন্য টোল ফ্রি

আগামী বছর বড় হামলার পরিকল্পনা ছিল তাদের